মাদকসেবীকে ছাড়িয়ে নিতে এএসআই’র ওপর আওয়ামী লীগ নেতার হামলা

মিন্টু গৌরীপুর: ময়মনসিংহের গৌরীপুরে শনিবার (৯জুন) থানায় গ্রেফতারকৃত আসামিদের ছেড়ে দিতে রাজি না হওয়ায় আওয়ামী লীগ নেতার হামলার শিকার হয়েছেন গৌরীপুর থানার পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) হাসানুজ্জামান। মারধরের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে ২নং গৌরীপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রোকনুজ্জামান পল­বকে।

এএসআই হাসানুজ্জামান জানান, দুপুরে হঠাৎ করে গৌরীপুর থানার কর্তব্যরত পুলিশ (ডিউটিরত পুলিশ) কক্ষে ছুটে আসেন উপজেলার ২নং গৌরীপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রুকনুজ্জামান পল্লব। এ সময় তিনি তিন ব্যক্তিকে ধরে আনার কারণ জানতে। গাঁজাসহ ওই তিন ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে জানালে তিন ক্ষিপ্ত হয়ে যান।

এরপর তিনি আটক তিন ব্যক্তি মাদক সেবন করে না চ্যালেঞ্জ করে পুলিশকে তাদের ছেড়ে দিতে বলেন। তবে হাসানুজ্জামান মাদকসেবীদের ছাড়তে রাজি না হওয়ায় তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। আসামী না ছাড়ায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আমার পোশাক ধরে টানাহেঁচড়া ও কিলঘুষি মারেন। আশপাশের লোকজন এস আমাকে রক্ষা করেন।

এ ঘটনায় পুলিশ ২নং গৌরীপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রুকনুজ্জামান পল্লবকে গ্রেফতার করেছে বলে নিশ্চিত করেন অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার আহম্মদ। তিনি জানান, হাসানুজ্জামান রাতে উপজেলার গজন্দর গ্রামের ফজলুল হকের পুত্র মাদকাসক্ত মনোয়ারুল সিফাত (১৯), আইন উদ্দিনের পুত্র মোঃ হাবিবুুর রহমান (১৮) ও গাভীশিমুল গ্রামের বকুল মিয়ার পুত্র আবু হানিফ (১৮) গ্রেফতার করে নিয়ে আসে। তাদের বিরুদ্ধে একটি ও থানায় এসে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় হাসানুজ্জামান বাদী হয়ে পৃথক ২টি মামলা দায়ের করেছে।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) তারিকুজ্জামান জানান, গ্রেফতারকৃত রুকনুজ্জামান পল্লবকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ বিভাগে নেয়া হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিধু ভূষণ দাস জানান, পল্লব উপজেলার গাভীশিমুল গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা খালেদুজ্জামানের পুত্র ও ২নং গৌরীপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। শোনেছি পুলিশের সঙ্গে খারাপ আচারণ করেছে। আমরা বলেছি, অযথা যেন হয়রানি বা নির্যাতন না করা হয়।