ডোমারে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ

ডোমার প্রতিনিধি: আবারো বই খাতা হাতে নিয়ে স্কুলে যাওয়ার স্বপ্ন সত্যি হলো নুরানী বেগমের। উপজেলার বোড়াগাড়ী ইউনিয়নের নওদাবশ মুন্সি পাড়া গ্রামের ৩নং ওয়ার্ডের নুরনবীর কন্যা বোড়াগাড়ী বালিকা বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী নুরানী বেগম (১৫)’র সাথে ৮জুন শুক্রবার গভীর রাতে গোপনে চিকনমাটি তাঁতীপাড়া গ্রামে আনোয়ার হোসেনের সাথে বিয়ে দেয়ার কথা ঠিকঠাক হয়।

কিন্তু বাঁধসাধে নিয়তি, ঠিক সেই সময় বেঁকে বসলেন এলাকাবাসী। কনে পক্ষকে বুঝিয়ে ব্যর্থ হয় তারা। শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ উম্মে ফাতিমাকে বিষয়টি জানালে, তিনি তাৎক্ষনিক ভাবে ২ প্রতিনিধিকে ঘটনা স্থলে পাঠিয়ে বিয়ে বন্ধের নির্দেশ দেয়। প্রতিনিধিদল কনের পিতা নুরনবীকে বুঝিয়ে কন্যা প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না মমের্, নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশ মতে মুছলেকা নিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেয়। উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় বাল্য বিয়ে বন্ধ হওয়ায় নতুন করে স্কুুল জীবন ফিরে পাওয়ায় অত্যান্ত খুশি নুরানী বেগম। এতে কর্তৃপক্ষকে সাধুবাদ জানিয়েছে এলাকার সচেতন মহল।

প্রিন্স, ঢাকা