গজারিয়া-মুন্সীগঞ্জ ফেরি চলাচল উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী

গজারিয়া প্রতিনিধি: মুন্সীগঞ্জ জেলা সদরের সঙ্গে গজারিয়া উপজেলার সড়ক যোগাযোগের সেতুবন্ধনে মেঘনা নদীতে ফেরি সার্ভিস শুরু হয়েছে। রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়া ফেরি সার্ভিসের উদ্বোধন করেন।

ফেরি সার্ভিস উদ্বোধন ঘোষণার মাধ্যমে মুন্সীগঞ্জ জেলা শহরসহ পাঁচটি উপজেলার সঙ্গে বিচ্ছিন্ন থাকা গজারিয়া উপজেলার সরাসরি সড়ক যোগাযোগে একীভূত হচ্ছে। এর মধ্য দিয়ে বহু বছর প্রতীক্ষার স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে গজারিয়া উপজেলার দেড় লাখ মানুষ এবং জেলা সদরসহ অন্যান্য এলাকার মানুষের।

গত বছরের আগস্ট থেকে ফেরিঘাট নির্মাণ কাজ শুরুর পর থেকেই গজারিয়া উপজেলাবাসীসহ এ নৌরুটে চলাচলরত যাত্রীদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছিল।

গজারিয়া থেকে মুন্সীগঞ্জ জেলা সদরের দুরত্ব ৭ কিলোমিটার। তবে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা না থাকায় মেঘনা নদীর কারণে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ হয়ে ৭০ কিলোমিটার ঘুরে গজারিয়া উপজেলাবাসী যেত জেলা সদরে। দুই উপজেলার মাঝ দিয়ে প্রবাহিত মেঘনা নদী গজারিয়াকে মুন্সীগঞ্জ জেলা সদরসহ পাঁচটি উপজেলা ও অন্যান্য জেলার সঙ্গে বিচ্ছিন্ন করে রেখেছিল। ফলে বছরের পর বছর ধরে জেলা সদরের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষায় গজারিয়া উপজেলাবাসীর একমাত্র ভরসা ছিল ইঞ্জিনচালিত ট্রলার। নদীপথ ঝুঁকিপূর্ণ হলেও বাধ্য হয়েই নৌপথে মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়ায় আসা-যাওয়া করতেন লাখ লাখ মানুষ।

মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা জানান, ২০১৬ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়ার মাঝ দিয়ে প্রবাহিত মেঘনা নদীতে ফেরি সার্ভিস চালু করতে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানকে নির্দেশ দেন। এর পরই গজারিয়ার সঙ্গে মুন্সীগঞ্জের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়।

জেলা প্রশাসক জানান, ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে মেঘনা নদী পরিদর্শন করেন বিআইডব্লিউটিএ’র প্রকৌশলীরা। এর পর জুলাই-আগস্ট মাসে মেঘনা নদীর মুন্সীগঞ্জ ও গজারিয়া প্রান্তে ফেরিঘাট স্থাপন করতে বিআইডব্লিউটিএ ড্রেজিং কাজের পাশাপাশি অ্যাপ্রোচ সড়ক নির্মাণ শুরু করে। এ কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর চলতি বছরের মার্চে মেঘনা নদীর উভয় প্রান্তে পল্টুন স্থাপন করে বিআইডব্লিউটিএ।

সূত্র জানায়, নিজস্ব অর্থায়নে ৪ কোটি ৭৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকায় ‘স্বর্ণচাপা’ নামে ফেরি নির্মাণ করা হয়। যানবাহনের চাপ বৃদ্ধির ওপর ভিত্তি করে ফেরি সার্ভিসের সময় নির্ধারণ ও ফেরিবহরে নতুন ফেরি যুক্ত করা হবে।

আজ ভিডিও কনফারেন্সের সময় মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার কে এম আলী আজম, মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মহিউদ্দিন, স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃনাল কান্তি দাস, বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান মো. মফিজুল হক, জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএমসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

প্রিন্স, ঢাকা