সন্ধান মেলেনি তিস্তার জলে ভেসে যাওয়া মোহনার

নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারীর ডিমলায় টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের দক্ষিন খড়িবাড়ী এলাকায় তিস্তা নদীতে ভেসে যাওয়া শিশু মোহনা আক্তার(৯)এর ৩দিনেও কোনো খোঁজ মেলেনী! আজ শনিবার রাত পর্যন্ত জীবিত বা মৃত অবস্থায় তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। শিশু মোহনা উক্ত প্রামের মনোয়ার হোসেনের কন্যা ও ব্রাক স্কুলের ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্রী ।

এলাকাবাসী সত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে বাড়ির ধারে তিস্তা নদীতে গোসল করতে নেমে নদীর স্রোতে ভেসে যায় শিশু মোহনা। তাকে তাৎক্ষনিকভাবে তাকে উদ্ধারে পরিবারের লোকজনসহ স্থানীয় মাঝিরা নৌকা দিয়ে তল্লাশী চালায়। এতে তাকে উদ্ধার করা সম্ভব না হলে পরে ডিমলা উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের মাধ্যমে রংপুর বিভাগীয় ফায়ার সার্ভিস হতে দুজন ডুবুরী নিয়ে আসা হয়। তারা বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত অনেক চেষ্টা করেও মোহনাকে উদ্ধার করতে পারেনি। নদীতে উজানের ঢলসহ স্রোত বৃদ্ধি পাওয়ায় শিশুটিকে উদ্ধার সম্ভব হয়নি। এদিকে ৩দিনেও সন্তানের কোনো খোজ না পেয়ে শিশুটির বাবা-মায়ের আহাজারি যেনো কিছুতেই থামছেনা ।

টেপাখড়িবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম শাহীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মোহনা পাশ্ববর্তী খগাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের দোহলপাড়া গ্রামে তার নানা বাড়িতে থেকে ব্রাক স্কুলে লেখাপড়া করত। বৃহস্পতিবার সকালে মোহনা নানার বাড়ি হতে বাবা মা এর বাড়িতে এসে বিকালে বাড়ির পাশে তিস্তা নদীতে খেলতে গিয়ে নিখোজ হয়ে যায়। সেই থেকে অনেক খোঁজা-খুঁজির ৩দিন অতিবাহিত হলেও সন্ধান মিলছে  না ।

প্রিন্স, ঢাকা