ওমানে আঘাত এনেছে মেকুনু নামের ঘূর্ণিঝড়ে

নিউজ ডেস্ক: ওমানের দক্ষিণাঞ্চলে আঘাত হেনেছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় মেকুনু। স্থানীয় সময় শনিবার বৃষ্টি ও তীব্র বাতাসের সঙ্গে আঘাত হানা এ ঘূর্ণিঝড়ে একজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া পাওয়া গেছে বলে বিবিসি জানিয়েছে।

পুলিশ বলছে, ঝড়ো হাওয়ায় একটি বাড়ির দেয়ালে ধাক্কায় মারা গেছে ১২ বছর বয়সী এক নারী শিশু। এসময় আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেলে প্রচারিত ভিডিও ফুটেজে ধোফার এবং অল-উস্তা প্রদেশে বাড়িঘর বিধ্বস্ত হওয়ার চিত্র দেখা গেছে।মেকুনু আঘাত হানার এই উপকূলীয় অঞ্চলে বাংলাদেশি জেলেরা সাধারণ নৌকায় বা পলিথিনের দুর্বল ঝুপড়িতে বসবাস করেন। এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন ওই জেলেদের পরিবারের স্বজনেরা।

বিবিসি বলছে, আঘাত হানার পর আস্তে আস্তে দুর্বল হয়ে যাচ্ছে ঘূর্ণিঝড়। এটি পর্যায়ক্রমে আরও দুর্বল হয়ে ঝড়ে পরিণত হতে পারে। ওমানের দ্বিতীয় প্রধান শহর সালালা থেকে বেশ কিছু দূরে একটি দ্বীপে এ ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানার পর ওই এলাকায় অন্তত সাতজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, মেকুনুর প্রভাবে প্রবল বাতাসে হাজার হাজার ঘরবাড়ি ভেঙে গেছে; গাছপালা উপড়ে পড়েছে। ঘূর্ণিঝড়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সালালা শহর ও আশপাশের এলাকা। ওই এলাকায় প্রায় ১০ হাজার মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছেন।

কর্তৃপক্ষ বসবাসকারীদের নিরাপদে আশ্রয় নেওয়ার জন্য সতর্ক করেছে। এরই মধ্যে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সালালা বিমানবন্দর।