পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লা সদরের বাজগড্ডায় পুলিশের সাথে বন্ধুকযুদ্ধে পেয়ার আলী (২৪) ও শরিফ (২৬) নামের ২ মাদক কারবারী নিহত। সোমবার দিবাগত রাত (২১ মে) রাত পৌণে ১ টায় সদর উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের বাজগড্ডা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ১ টি রিভলভার, ২ রাউন্ড গুলি, ৫০ কেজি গাঁজা, ৫০০ বোতল ফেন্সিডিল ও পাজারো জিপ গাড়ী উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় কোতয়ালী থানার পরিদর্শক (অপারেশান) রুপ কুমারসহ ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, জেলার মাদক সম্রাট খ্যাত নিহত পেয়ার আলী কুমিল্লা সদরের শুভপুর এলাকার আলী মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ১৩টি মাদকের মামলা রয়েছে। নিহত শরিফ কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার চৌয়ারা এলাকার মহেশপুর গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৫টি মাদকের মামলা রয়েছে।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের বাজগড্ডা এলাকায় অভিযান চালায়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ করে গুলি ছোঁড়ে মাদক কারবারীরা।

পরে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। এতে নিহত পেয়ার আলী ও শরীফ গুলিবিদ্ধ হয়। তাদের উদ্ধার করে পুলিশ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষনা করে। এ সময় কোতয়ালী থানার পরিদর্শক (অপারেশান) রুপ কুমারসহ ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাত সাড়ে ১২ টার দিকে স্থানীয়রা একাধিক গুলিবর্ষণের শব্দ শুনতে পায়। পরে দুটি গুলিবিদ্ধ যুবকের দেহ নিয়ে পুলিশের কয়েকটি গাড়ি কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দিকে যায়। কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইর্মাজেন্সিতে কর্মরত বিল্লাল হোসেন জানান, রাত সোয়া ১ টায় থানা পুলিশ গুলিবিদ্ধ ২ যুবককে হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষনা করেন।

এ বিষয়ে কুমিল্লা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. তানভীর সালেহীন ইমন পিপিএম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত পেয়ার আলী ও শরীফ বড় মাপের মাদক কারবারী ছিল। পেয়ারের বিরুদ্ধে ১৩টি ও শরীফের বিরুদ্ধে ৫টি মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় কোতয়ালী থানার পরিদর্শক (অপারেশান) রুপ কুমারসহ ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে।