জনসভার বিরিয়ানি খেয়ে প্রায় ৫শ’ লোক অসুস্থ

নিউজ ডেস্ক: ঝিনাইদহ-৩ আসনে (মহেশপুর-কোটচাঁদপুর) আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাবেক সংসদ সদস্য পারভিন তালুকদার মায়ার কোটচাঁদপুরের জনসভায় বিরিয়ানি খেয়ে ফের প্রায় ৫শ’ লোক অসুস্থ। তাদের মধ্যে ১শ’ ৪০ জনকে কোটচাঁদপুর ও ৫ জনকে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ঝিনাইদহ-৩ আসন থেকে সংসদ সদস্য মনোনয়ন প্রত্যাশী পারভীন তালুকদার মায়া কোটচাঁদপুর মেইন বাসস্ট্যান্ডে এক কর্মী সভার আয়োজন করে। তার আগে তিনি মোটর সাইকেল, আলমসাধু ও গাড়িসহ শোডাউন করেন। সমাবেশ শেষে আগত নেতাকর্মীদের মাঝে বিরিয়ানির প্যাকেট বিতরণ করা হয়।

বিরিয়ানি খেয়ে রাত থেকে অসুস্থ হতে শুরু করে লোকজন। তারা পেটে ব্যথা, বমি ও পায়খানায় আক্রান্ত হতে থাকে। গতকাল বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত কোটচাঁদপুর হাসপাতালে একশ’ ৪০ জনকে ও কালীগঞ্জ হাসপাতালে ৫ জনকে ভর্তি করা হয়। অন্য আক্রান্তরা গ্রাম্য ডাক্তার, ক্লিনিক ও বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছে বলে জানা যায়।

কোটচাঁদপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মামুনশিয়া গ্রামের মোশারফ হোসেন জানান, তিনি সভা শেষে পাওয়া বিরিয়ানি খান। বাড়ি ফেরার পর রাত ৮টা থেকে পেটে ব্যথা, বমি ও পাতলা পায়খানা শুরু হয়। এরপর হাসপাতালে নিয়ে আসে স্বজনেরা। গোবিন্দপুর গ্রামের শামসুল ইসলাম জানান, তিনি দু’প্যাকেট বিরিয়ানি পান। বাড়ি ফিরে স্ত্রী মাসুরাসহ পরিবারের ৫ জন খান। রাত ৩টার দিকে সকলেই বমি ও পায়খানা শুরু করে। সাথে পেটে তীব্র ব্যথা হয়। তাদের কোচাঁদপুর হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়। অন্য রোগিরাও একই ধরণের তথ্য জানান। এদিকে হাসপাতালে আগতদের চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন ডাক্তার ও নার্সগণ। মেঝে সিঁড়িতে রোগী গিজগিজ করছে।

পারভিন তালুকদার মায়া বলেন, ঝিনাইদহ-৩ আসনে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। এজন্য তিনি গন সংযোগ করছেন। আজ বুধবার কোটচাঁদপুর বাসস্ট্যান্ডে এ কর্মী সভার আয়োজন করেন। সভা শেষে নেতা-কর্মীদের মাঝে ৫ হাজার প্যাকেট বিরিয়ানি বিতরণ করা হয়। এ বিরিয়ানি তার মহেশপুরের বাসায় স্থানীয় বাবুর্চি দিয়ে রান্না করা হয়। তিনি নিজেও অসুস্থ হয়েছেন বলে জানান।

কোটচাঁদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শাহাব উদ্দিন বলেন, হাসপাতালে আগতরা খাদ্যে বিষক্রিয়াতে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন। তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা পর্যন্ত ১৪০ জন ভর্তি হয়েছেন।

এছাড়া, গত মঙ্গলবার ওই নেত্রীর মহেশপুরে সমাবেশে শেষে দেওয়া বিরিয়ানি খেয়ে শ’ খানেক লোক খাদ্যে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়। ৭০ জনকে মহেশপুর, কোটচঁদপুর ও জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান জানান, ঘটনা তদন্তে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( ঝিনাইদহ সদর সার্কেল ) কনক কুমার দাসকে প্রধান করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা তদন্ত শুরু করেছেন।