প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক ২য় আন্তর্জাতিক সম্মেলন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৫-১৭ মে প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক ২য় আন্তর্জাতিক সম্মেলন উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন: “প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক ২য় আন্তর্জাতিক সম্মেলন ১৫-১৭ মে ২০১৮ ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ উপলক্ষে আমি সংশ্লিষ্ট সকলকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার আন্তর্জাতিক কাঠামো ‘সেন্দাই ফ্রেমওয়ার্ক ফর ডিজাস্টার রিস্ক রিডাকশন (SFDRR) ২০১৫-২০৩০’ এর বিভিন্ন অংশে প্রবেশগম্যতা ও অন্তর্ভুক্তির প্রসঙ্গ উল্লেখ করা হয়েছে। নিরাপদ এবং অধিক সহনশীল বিশ্ব গড়ে তুলতে এখানে দিক-নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। সেন্দাই ফ্রেমওয়ার্কে টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাসকে অধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। যে কোন দুর্যোগে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিগণ সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে থাকে এবং তাঁদের বিপদাপন্নতার মাত্রাও অধিক। সেজন্য টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ে প্রতিবন্ধিতা অন্তর্ভুক্তিমূলক দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কৌশল প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করা অতীব জরুরি।

বাংলাদেশ ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক ১ম আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজন করে যা ‘ঢাকা সম্মেলন’ হিসেবে পরিচিত। সে সম্মেলনে দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাসে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অর্থবহ অংশগ্রহণ ও সুরক্ষার বিষয়সমূহ অন্তর্ভুক্ত করে ‘ঢাকা ঘোষণা’ গৃহীত হয়।

আমাদের সরকার প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে সামাজিক নিরাপত্তা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। আমরা উন্নয়ন কর্মসূচির মূলধারায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বিপদাপন্নতা হ্রাসসহ মর্যাদাপূর্ণ জীবনযাপনে সামাজিক নিরাপত্তা কার্যক্রম গ্রহণ করেছি। যার চূড়ান্ত লক্ষ্য হচ্ছে ‘কাউকে বাদ দিয়ে নয়’ এর আলোকে ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (SDG)’ এর লক্ষ্য অর্জনে ভূমিকা রাখা।

আমি বিশ্বাস করি যে, এই সম্মেলন ‘ইউনাইটেড নেশনস কনভেনশন অন দ্য রাইটস অভ্ পার্সনস উইথ ডিসঅ্যাবিলিটি (UNCRPD)’ বাস্তবায়নে মাইলফলক হয়ে থাকবে। এর মাধ্যমে সকল দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অন্তর্ভুক্তিমূলক কার্যক্রম গ্রহণ ও নেতৃত্ব প্রদানের ক্ষেত্রে দিক-নির্দেশনা প্রদানে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

আমি আশা করি, জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে প্রতিবন্ধিতা অন্তর্ভুক্তিমূলক দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় সংশ্লিষ্ট সকলের সক্ষমতা বৃদ্ধিসহ নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে অনুশীলনের ক্ষেত্রে এ সম্মেলন কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

আমি প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক ২য় আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।
জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু
বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”

প্রিন্স, ঢাকা নিউজ২৪