ইলেকট্রিক মিস্ত্রি হত্যা মালার আসামি নিহত বন্দুকযুদ্ধে

ময়মনসিংহ প্রতিবেদক: ময়মনসিংহ শহরে ইলেকট্রিক মিস্ত্রি পিউ বাবু হত্যা মালার প্রধান আসামি সারফান ইসলাম পুলিশের সঙ্গে তথাকথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। গত রোববার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে শহরের তিনকোণা পুকুরপাড় এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে বলে দাবি করেছেন জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আশিকুর রহমান। সারফান ইসলাম ময়মনসিংহ শহরের বাসিন্দা।

সোমবার সকালে গণমাধ্যমকে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, গত ২১ এপ্রিল সন্ধ্যায় শহরের কলেজ রোড রেললাইন এলাকায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রি পিউ বাবুকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় সারফানসহ কয়েকজনকে আসামি করে মামলা হয়। সারফানের বিরুদ্ধে একাধিক হত্যা মামলা রয়েছে। পিউ বাবু হত্যার পর থেকেই পলাতক ছিলেন তিনি।

গত রোববার দিনের বেলায় শহরের ২ নম্বর পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সজীব রহমান ও গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল সারফানকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাঁকে ময়মনসিংহ এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।’

ডিবি ওসি দাবি করেন, ‘সারফানের তথ্য অনুযায়ী, রাতেই তাঁকে নিয়ে এই মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে তিনকোণা পুকুরপাড়ের অনন্যা আবাসন এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় একই মামলার পলাতক আসামি রাজিবসহ অজ্ঞাতনামা ৮/১০ জন পুলিশের ওপর হামলা ও গুলি চালায়। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়।’

পালাতে গিয়ে সারফান গুলিবিদ্ধ হন। তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় দুই পুলিশ সদস্যও আহত হয়েছে বলে দাবি করেন ওসি। তিনি আরও জানান, আহতদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা হবে।

প্রিন্স, ঢাকা