নীট শিল্পের ৪২৯ জন মৃত শ্রমিকের বিমার টাকা প্রদান

গার্মেন্টস শিল্পের শ্রমিকদের জন্য গঠিত কেন্দ্রীয় তহবিল থেকে নীট শিল্পের ৪২৯ জন মৃত শ্রমিকের বিমা দাবির দু’লাখ করে মোট ৮ কোটি ৫৮ লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছে। শনিবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে নীট শিল্পের মৃত শ্রমিকদের বিমা দাবির চেক প্রদান অনুষ্ঠানে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক (চুন্নু) প্রধান অতিথি হিসেবে নীট শিল্পের মৃত শ্রমিকদের স্বজনদের হাতে বিমা দাবির চেক তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, শতভাগ রপ্তানীমুখী গার্মেন্টস শিল্পের শ্রমিকদের জন্য গঠিত কেন্দ্রীয় তহবিল গঠন বর্তমান সরকারের একটি বড় অর্জন। গত বছর জুলাই থেকে এ তহবিলে আজ পর্যন্ত ৯৬ কোটি টাকা জমা হয়েছে। মোট রপ্তানি মূল্যের শূন্য দশমিক শূন্য তিন শতাংশ অর্থ ব্যাংকের মাধ্যমে সরাসরি এ তহবিলে জমা হয়। তিনি বলেন, যত বেশি রপ্তানি হবে তত বেশি অর্থ এ তহবিলে জমা হবে।

তিনি বলেন, শ্রমবান্ধব এ সরকার গার্মেন্টস শিল্পের শ্রমিকদের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সরকার কেন্দ্রীয় তহবিল গঠন করে কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় নিহত শ্রমিকদের যৌথ বিমার দু’লাখ টাকা ছাড়াও এ তহবিল থেকে শ্রমিকের স্বজনদের তিন লাখ টাকা করে প্রদান করছে। এ তহবিল থেকে কর্মস্থলের বাইরে কোন শ্রমিক নিহত হলে তাদেরকেও দু’লাখ টাকা এবং দুরারোগ্য অসুখের চিকিৎসার জন্য সর্বোচ্চ এক লাখ প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া এ তহবিল থেকে গার্মেন্টস শ্রমিকের সন্তান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিক্যাল কলেজ কিংবা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করলে তাকে তিন লাখ টাকা এবং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করলে তাকে ৫০ হাজার টাকা শিক্ষা সহায়তা দেয়া হচ্ছে।

চেক প্রদান অনুষ্ঠানের সভাপতি সংসদ সদস্য এবং বিকেএমইএ এর সভাপতি এ কে এম সেলিম ওসমান বলেন, বর্তমানে নীট শিল্প সবচেয়ে সুশৃঙ্খল একটি শিল্প। বিকেএমইএ এর সভাপতি নীট শিল্পের উদ্যেক্তাগণ ঈদের আগেই শ্রমিকদের বেতন-ভাতা প্রদানে উদ্যোগী হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি নীট শিল্পের মৃত শ্রমিকদের পরিবারে কর্মক্ষম থাকলে তাদের নীট শিল্পে কর্মসংস্থানের আশ্বাস দেন।

অনুষ্ঠানে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব আফরোজা খান এবং বিকেএমইএ এর প্রথম সহসভাপতি মোঃ মুনছুর আহমেদ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন।

প্রিন্স, ঢাকা নিউজ২৪