বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

স্টাফ রিপোর্টার: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন: “বাংলাদেশের অব্যাহত অগ্রযাত্রার ধারাবাহিকতায় আজকে যোগ হল আরও একটি মাইলফলক। আজ আমরা মহাকাশে উৎক্ষেপণ করলাম বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১। এই স্যাটেলাইটের মাধ্যমে আমরা মহাকাশে বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করলাম। জাতির এই গৌরবময় দিনে আমি দেশবাসীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। আমি শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। স্মরণ করছি মহান মুক্তিযুদ্ধের ত্রিশ লাখ শহিদ, দু’লাখ সম্ভ্রম হারানো মা-বোনকে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুধাবন করেছিলেন বহির্বিশ্বের সঙ্গে অব্যাহত যোগাযোগ রক্ষা করতে না পারলে অগ্রগতি ও প্রগতির পথে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। স্বাধীনতার মাত্র তিন বছরের মাথায় ১৯৭৫ সালে তিনি রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায় প্রথম উপগ্রহ ভূ-কেন্দ্র উদ্বোধন করেন। আজ আমরা জাতির পিতার সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে আরেক ধাপ এগিয়ে গেলাম নিজস্ব কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণের মধ্য দিয়ে।

২০০৯ সাল থেকে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা ইউনিয়ন পর্যায়েও ইন্টারনেট সেবা বিস্তৃত করেছি। ২০২১ সালের মধ্যে বিশ লাখ তরুণ-তরুণীকে প্রযুক্তি পেশায় সম্পৃক্ত করতে উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ফ্রিল্যান্স পেশার প্রসার ঘটিয়ে বিশ্বে আমাদের অবস্থান এখন তৃতীয় স্থানে। দেশী-বিদেশি সংস্থাসমূহের ব্যবসার সুযোগ বৃদ্ধির জন্য হাইটেক পার্ক নির্মাণ করা হচ্ছে। সহজ ও সুলভ ইন্টারনেটের জন্য সাবমেরিন ক্যাবলকে সিমিউই ফাইভের সঙ্গে সংযুক্ত করার পাশাপাশি আন্তর্জাতিকমানের ডাটা সেন্টার নির্মাণ করা হয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তির সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে স্যাটেলাইট। এখন থেকে আমরা স্যাটেলাইট ক্লাবের গর্বিত অংশীদার। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ আমাদের সম্প্রচার ও টেলিযোগাযোগ খাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনবে।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ নির্মাণ ও উৎক্ষেপণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ, বিটিআরসি, প্রকল্প এবং বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের সকল কর্মীকে ধন্যবাদ জানাই। ধন্যবাদ জানাচ্ছি এই স্যাটেলাইট নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের ‘থেলাস এলিনিয়া’ এবং উৎক্ষেপণকারী প্রতিষ্ঠান ‘স্পেস-এক্স’-কে। রাশিয়াকে তাদের অরবিটাল স্লট ব্যবহারের সুযোগ প্রদানের জন্য বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানাই।

আমি বিশ্বাস করি, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট সম্প্রচার ও টেলিযোগাযোগ খাতের উন্নয়নের মাধ্যমে দেশ এবং দেশের জনগণের জন্য সীমাহীন সুযোগ সৃষ্টি করবে।

আমি বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর কার্যক্রমের সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু
বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”