জেলা প্রশাসকের উদ্দ্যোগে সেলাই মেশিন প্রদান

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহে হত্যা মামলায় ১৬ বছর জেল খেটে জামিনে মুক্তি পাওয়া নারী গোলাপী বেগমকে স্বাবলম্বী হতে সেলাই মেশিন ও ৫ হাজার টাকা দিয়েছে জেলা প্রশাসন। রোববার বিকেলে জেল থেকে বের হওয়ার পর তার হাতে সেলাই মেশিন ও টাকা তুলে দেন জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ। জানা যায়, একটি হত্যা মামলায় ২০০২ সালের ১৮ মে থেকে জেল খানায় বন্দি রয়েছেন শহরের পবহাটি এলাকার আকবর আলীর স্ত্রী গোলাপী বেগম।

সম্প্রতি ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ জেলখানা পরিদর্শনে গিয়ে গোলাপী বেগমের সাথে কথা বলেন। গোলাপী বেগম স্বাবলম্বী হতে জেলা প্রশাসকের নিকট সেলাই মেশিন দাবী করেন। গোলাপী বেগম উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়ে রোববার জেল থাকা থেকে মুক্তি পান। এসময় জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ একটি সেলাই মেশিন ও ৫ হাজার টাকা তাকে প্রদাণ করেন।

সেসময় ঝিনাইদহের সফল জেলার নিজাম উদ্দিন, সদর উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার মমিনুর রহমানসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ বলেন, সেলাই মেশিনের সাথে তাকে সামান্য পুজি দেওয়া হয়েছে। যে কারণে কারো কাছে হাত পাততে হবে না। দীর্ঘদিন জেল খানায় জামিনে মুক্তিপেয়ে নিজে কাজ করে চলতে পারবে। মানুষের কাছে তাকে যেতে হবে না। যে কারণেই তাকে সেলাই মেশিন ও টাকা দেওয়া হয়েছে। গোলাপী বেগম স্বাবলম্বী হবার সাহসী স্বপ্ন দেখেছিল। আজই শুরু হলো নতুন অধ্যায়। বাকিটা জীবন যেন ভালোভাবে চলতে পারে এ কামনা করি।

প্রিন্স, ঢাকা