সোনার বাংলা গড়ার অঙ্গিকারে মহান মে দিবস পালিত

নিউজ ডেস্ক: ‘শ্রমিক-মালিক ভাই ভাই, সোনার বাংলা গড়তে চাই’ এ প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে আজ রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মহান মে দিবস পালিত হয়েছে।

কর্মসূচির মধ্যে ছিল বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কবিতা পাঠসহ নানা কর্মসূচি।
মঙ্গলবার ছিল সরকারি ছুটির দিন।

এই উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম রওশন এরশাদ পৃথক বাণী প্রদান করেন।
শ্রমিক অধিকার রক্ষায় বাংলাদেশের সকল গণমাধ্যমে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার, সংবাদপত্রের বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ করা হয়।
মহান মে দিবস পালন উপলক্ষে রাজধানী ঢাকায় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এক বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করে। রাজধানীর দৈনিক বাংলা মোড়ের শ্রম ভবন এলাকা হতে র‌্যালিটি বের হয়। এই র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু।
পহেলা মে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় মহান মে দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক।

জাতীয় শ্রমিক লীগ বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে মহান মে দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি।

জাতীয় শ্রমিক পার্টি বিকেলে পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সামনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

জাতীয় শ্রমিক পার্টির সভাপতি একেএম আসরাফুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন সংসদে বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম রওশন এরশাদ, জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ , কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

রাজধানীর গুলিস্তানে জাতীয় শ্রমিক জোট আয়োজিত এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু শ্রমিকদের নূন্যতম মজুরি ১৮ হাজার টাকা দাবির প্রতি সমর্থন করে বলেন, ‘আমরা কারখানা রক্ষা করতে চাই, শ্রমিকদেরও হাসি মুখে রাখতে চাই। এবারের মে দিবসের অঙ্গীকার হোক নূন্যতম মজুরি নিশ্চিত করার একটি স্থায়ী ব্যবস্থা হোক, সুস্থ শ্রমিক মালিক সম্পর্ক হোক, নিরাপত্তা হোক, মর্যাদা পাই, সম্মান হোক এবং শ্রমিকরা হাসি-খুশি থাক।’

নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান মতিঝিলে আজ এক শ্রমিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বলেন, দুর্ঘটনা রোধে শ্রমিক মালিক ও যাত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সচেতন হতে হবে। চালকের অবহেলা ও অদক্ষতায় যেন দুর্ঘটনা না ঘটে সেজন্য চালকদের আরো বেশি সাবধানতার সাথে গাড়ি চালাতে হবে।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের উদ্যোগে মহান মে দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষিত সংবাদপত্র সেবীদের জন্য ১৯৭৪ সালের আইন পুনর্বহালের জন্য আহবান জানান।

ইউনিয়নের কার্যালয়ে সংগঠনের সভাপতি আবু জাফর সুর্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব ওমর ফারুক, সাবেক মহাসচিব আবদুল জলিল ভুইয়া, সাবেক কোষাধ্যক্ষ আতাউর রহমান, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সোহেল হায়দার চৌধুরী ও সাবেক সভাপতি শাবান মাহমুদ।

মহান মে দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ লেবার রাইটস সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি কাজী আবদুল হান্নান ও সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান এক বিবৃতিতে অবিলম্বে সকল গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য ১০০ ভাগ মহার্ঘ ভাতা প্রদানের দাবি করে বলেন, দ্রব্য মূল্যের উর্ধ্ব গতিতে গণমাধ্যম কর্মী জীবন যাত্রা চরম দুর্বিষহ হয়ে ওঠেছে।

মহান মে দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ট্রাস্ট গার্মেন্টস শ্রমিক-কর্মচারী ফেডারেশন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সমাবেশ ও মিছিল বের করে। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি এইচ.এম, বেল্লাল। সমাবেশে পোশাক শ্রমিকদের জন্য ১৫ দফা দাবিনামা উপস্থাপন করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আবিদা সুলতানা দিবা। সমাবেশে ন্যূনতম মুজরি ১৪ হাজার টাকা, নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত, শ্রমিক হয়রানি বন্ধ, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, পেশাগত স্বাস্থ্য-নিরাপত্তা, ক্ষতিপূরণের পরিমাণ বৃদ্ধি, ইপিজেডসহ সকল কারখানায় ট্রেড ইউনিয়ন করার অধিকার, শ্রমিকদের জন্য আবাসন সুবিধা, আট ঘন্টার মধ্যে এক ঘন্টা কর্মবিরতিসহ বিভিন্ন দাবি জানানো হয়।

মহান মে দিবস উপলক্ষে গৃহ শ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্ক জাতীয় প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা ও বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করে। এতে বক্তব্য রাখেন মো আবুল হোসেন ও সৈয়দ সুলতান উদ্দিন আহমদ প্রমুখ।

চন্দ্রদ্বীপ ওয়েল ফেয়ার ফাউন্ডেশন জাতীয় প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা ও বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করে। এতে বক্তব্য রাখেন এইচ এম বেল্লাল ও শামিম পারভেজ রানা প্রমুখ।

শ্রমিকদের দাবি ও অধিকার আদায়ের দাবিতে আজ মুখরিত হয়ে উঠেছে জাতীয় প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণ। আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন মিছিল, র‌্যালি, মানববন্ধন ও সমাবেশের আয়োজন করে।

ঢাকা মহানগরীর প্রাইভেট কার ও ট্যাক্সি ক্যাব ড্রাইভার্স ইউনিয়ন, জাতীয় গার্হস্থ্য নারী শ্রমিক ইউনিয়ন, দি সিটি ব্যাংক কর্মচারী পরিষদ, বাংলাদেশ আওয়ামী মটরচালক লীগ, বাংলাদেশ েেক্ষতমজুর সমিতি, ইমারত নির্মান শ্রমিক ইউনয়ন, বাংলাশে রেলওয়ে শ্রমিক লীগ, ট্যানারী ওয়ার্কাস, ইউনিয়ন, শ্রমিক নিরাপত্তা ফোরাম, রেডিমেট গার্মেন্টস ওয়ার্কাস ফেডারেশন, জাগো বাংলাদেশ শিশু কিশোর ফেডারেশন, বাংলাদেশ সাংবাদিক অধিকার ফোরাম, লেবার রাইটস সাংবাদিক ফোরাম, বাংলাদেশ ট্রাস্ট গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশন, শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদ (স্কপ), বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ফেডারেশন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন, কারিতাস সেফ প্রকল্প, গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ, গৃহশ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্ক, বাংলাদেশ ক্ষেত মজুর সমিতিওয়্যারবী ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনসহ বিভিন্ন সংগঠন নিজ-নিজ ব্যানারে দিবসটি উপলক্ষে সমাবেশ ও র‌্যালির আয়োজন করে।

শ্রমিকের কর্মেই দেশ আজ উন্নত হচ্ছে বলে উল্লেখ করে নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘দেশকে আরও সমৃদ্ধশালী করতে হলে শ্রমিকদের উন্নতির বিকল্প নেই। দৈনিক কাজের সময় ৮ ঘণ্টা নির্ধারণের দাবি জানিয়ে তারা বলেন, ‘শ্রমিকদের কর্মঘণ্টা নির্ধারণ, অতিরিক্ত কাজের বিনিময়ে অতিরিক্ত পারিশ্রমিক প্রদান, আইনি সুরক্ষা দিয়ে জাতীয় নূন্যতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা ঘোষণা করতে হবে।’’

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন মহান মে দিবস উপলক্ষে এ শ্রমিক সমাবেশের আয়োজন করে। পরে একটি র‌্যালি বের হয়।

দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে বাসস প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাগণ জানান, সেসব কর্মসূচির মধ্যে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ছাড়াও ছিল উল্লেখযোগ্য নানা কর্মসূচি।

বাসস’র ভোলা সংবাদদাতা জানান, মে দিবস উপলক্ষে জেলা শ্রমিক লীগের এক কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকালীন সরকার থাকবেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী। তাঁর অধীনেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কোন তত্ত্বাবধায়ক সরকার আর এদেশে আসবে না। কোন সহায়ক সরকারও আর আসবে না। তিনি নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণের জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান।

বরগুনা সংবাদদাতা জানান, বরগুনায় বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে মহান মে দিবস পালিত হয়েছে। জেলা শ্রমিক ফেডারেশনের আয়োজনে সকালে টাউন হল মোড়ে মহান মে দিবসের কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বরগুনা ১ আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু।

ফেনী সংবাদদাতা জানান ফেনীতে সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে গৃহীত কর্মসূচির অংশ হিসেবে গৃহীত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে একটি বণার্ঢ্য র‌্যালি ফেনী শহীদ মিনার চত্বর থেকে শুরু হয়ে জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে শেষ হয়। জেলা প্রশাসক মনোজ কুমার রায়ের নেতৃত্বে এ র‌্যালীতে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন, বিএনসিসি, স্কাউড এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রী অংশগ্রহণ করে। জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। তাছাড়া জেলা শ্রমিক লীগ, শ্রমিক দল ও বিভিন্ন শ্রমিক ইউনিয়ন পৃথক পৃথকভাবে দিবসটি উদযাপন করছে।

গাজীপুর সংবাদদাতা জানান, বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন, বিএনসিসি, স্কাউড এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। গাজীপুর সাংবাদিক ইউনিয়ন কাপাসিয়ায় এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। নূরুল আমীন সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সাংবাদিকরা আলোচনায় অংশ নেন।

বগুড়া সংবাদদাতা জানান, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া সত্ত্বেও সকাল থেকেই বিভিন্ন দল, শ্রমিক ও পেশাজীবী সংগঠনের ব্যানারে হাজার হাজার শ্রমিক-পেশাজীবী মানুষ শোভাযাত্রা করে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এ ছাড়াও তারা নিজ-নিজ কর্মসূচি পালন করে। জেলা প্রশাসন, আঞ্চলিক শ্রমিক দপ্তর, শ্রম কল্যাণ কেন্দ্র এবং কল কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে নেয়া কর্মসূচি অনুযায়ী সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা পরিষদে এসে শেষ হয়। এরপর জেলা পরিষদ মিলনায়তরে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ নূরে আলম সিদ্দিকী। এতে সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রায়হানা ইসলাম।

সিলেট থেকে বাসস জানায়, বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন, রাজনৈতিক সংগঠন ও প্রশাসনের উদ্যোগে নানা কর্মসূচি পালিত হচ্ছে। বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে সকাল থেকেই নগরীর বিভিন্ন সড়কে মিছিল বের করা হয়েছে।এদিকে দিবসটিতে নগরীতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করেছে সিলেট জেলা প্রশাসন। র‌্যালিটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে অংশ নেন সিলেট বিভাগীয় কমিশনার ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম, সিলেট জেলা প্রশাসক নুমেরী জামান, সাবেক সাংসদ শফিকুর রহমান চৌধুরী প্রমুখ।
এদিকে, মহান মে দিবস উপলক্ষে হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন, ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ, জেলা শ্রমিক সংঘসহ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন মিছিল সমাবেশ করেছে।

খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা জানান, দিবসটি উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। খাগড়াছড়ি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পৌর টাউন হলে শোভাযাত্রাটি শেষ হয়। পরে জেলা শ্রমিক লীগের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়।

টাউন হল মিলনায়তনে মে দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভারত প্রত্যাগত শরণার্থী পুনর্বাসন টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান(প্রতিমন্ত্রী) কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে শ্রমিকদের ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটে, আর বিএনপি ক্ষমতায় থাকলে কলকারখানা বন্ধ হয়। শ্রমিকদের কল্যাণে আওয়ামী লীগ কাজ করে যাচ্ছে দাবি করে ভবিষ্যতেও কাজ করার সুযোগ দিতে শ্রমিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

এসময় জেলা প্রশাসক মো. রাশেদুল ইসলাম ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য খগেশ^র ত্রিপুরা উপস্থিত ছিলেন।

কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা জানান, দিবসটি উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি জাফর আলী। পরে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বিজয় স্তম্ভ হতে বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে। পরে শহরের জিরো পয়েন্ট শাপলা চত্বরে এক আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বক্তব্য রাখেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি জাফর আলী ও জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন।

মাগুরা সংবাদদাতা জানান, এ উপলক্ষে মঙ্গলবার জেলা প্রশাসনে উদ্যোগে শহরে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়। র‌্যালীতে জাতীয় শ্রমিক লীগ মাগুরা শাখা, মাগুরা জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতি,ট্রাক ও টাংক কভার্ড শ্রমিক সমিতি, ইমারত নির্মান শ্রমিক সমিতি, মাইক্রোবাস মালিক সমিতি, ইজিবাইক মালিক সমিতি ,দর্জি শ্রমিক সমিতি,ব্যাটারী চালিত রিক্সা শ্রমিকসহ বিভিন্ন শ্রমিক সমিতি অংশ নেয় ।

নড়াইল, সংবাদদাতা জানান, নড়াইলে যথাযথ মর্যাদায় মহান মে দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি পালন উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সকাল পৌনে ১০টায় শহরের রুপগঞ্জ বাস স্ট্যান্ড থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিতে জেলা প্রশাসক মো. এমদাদুল হক চৌধুরী, পুলিশ সুপার মো. জসিম উদ্দিন পিপিএম ও নড়াইল পৌরসভার মেয়র মো. জাহাঙ্গীর বিশ্বাস ।

একই ধরণের নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে খুলনা, সিলেট, লালমনিরহাট, কুমিল্লা, জয়পুরহাট, ঝিনাইদহ, নড়াইল, গোপালগঞ্জ, নাটোর, পাবনা, ফরিদপুর, লক্ষ্মীপুর, সিরাজগঞ্জ, নোয়াখালি, মেহেরপুর, মাদারিপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মহান মে দিবস পালিত হয়েছে।