রোহিঙ্গাদের দেখতে আসছে নিরাপত্তা পরিষদের দল

নিউজ ডেস্ক: রোহিঙ্গা সংকট সরেজমিনে দেখতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্যদের একটি প্রতিনিধি দল আজ শনিবার বাংলাদেশ সফরে আসছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, প্রতিনিধি দলটি একটি বিশেষ ফ্লাইটে সরাসরি কক্সবাজারে পৌঁছাবে। কক্সবাজারে প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানাবেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম।

এ দলে রয়েছেন জাতিসংঘে যুক্তরাজ্যের স্থায়ী প্রতিনিধি। এ ছাড়া এই দলে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন ও ফ্রান্সের প্রতিনিধিও রয়েছেন। থাকছেন নেদারল্যান্ডস, কুয়েত, বলিভিয়া, ইথিওপিয়া, কাজাখাস্তান, পেরু, পোলান্ড, সুইডেন ও আইভরি কোস্টের প্রতিনিধিও।

সূত্র জানায়, কক্সবাজারে পৌঁছানোর পর প্রতিনিধি দলটি কক্সবাজারে শরণার্থী শিবিরে গিয়ে রোহিঙ্গাদের দেখবেন, তাদের সঙ্গে কথাও বলবেন।

আগামীকাল রোববার ঢাকায় হোটেল রে‌ডিসনে প্রতিনিধি দলটির সৌজন্যে নৈশভোজের আয়োজন থাকবে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পক্ষ থেকে। তার পরদিন সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে প্রতিনিধি দলটির সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে। প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী বর্তমানে দেশের বাইরে রয়েছেন। ৩০ এপ্রিল, সোমবারের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ সফর শেষে একই ইস্যুতে ৩০ এপ্রিলই দুই দিনের সফরে মিয়ানমার যাবে নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিনিধি দলটি।

গত বছরের আগস্টের শেষ দিকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে দমন-পীড়ন শুরু করে। এ সময় কয়েক হাজার রোহিঙ্গাকে হত্যা করা হয়। ধর্ষণ করা হয় শত শত রোহিঙ্গা কিশোরী-নারীকে। নির্যাতন থেকে বাঁচতে প্রায় সাড়ে ৭ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। সব মিলিয়ে বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গার সংখ্যা ১০ লাখেরও বেশি। এই দমন-পীড়নকে ‘জাতিগত নিধনযজ্ঞ’ বলে আখ্যা দেয় জাতিসংঘ।

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চাপের মুখে মিয়ানমার দমন-পীড়ন থামিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা করে রোহিঙ্গাদের স্বদেশে প্রত্যাবাসনে রাজি হলেও ঢাকার অভিযোগ, এই প্রক্রিয়ায় গড়িমসি করছে নেপিদো। তাই আসন্ন বর্ষায় পরিস্থিতি আরো বিপর্যয়কর হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা পর্যবেক্ষকদের।