জীবন বলী চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ শাহজালাল

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী আবদুল জব্বারের ১০৯তম বলীখেলায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার আরিফুল ইসলাম জীবন বলী। ফাইনালে কুমিল্লার শাহজালাল বলীকে হারিয়ে তিনি চ্যাম্পিয়ন হন। শাহজালাল বলী রানার্স আপ বিজয়ী হন।

গতকাল বুধবার বিকেল ৫টা ৩১ মিনিটে শুরু হওয়া ফাইনাল খেলায় তুমুল প্রতিদ্ব›িদ্বতাপূর্ণ ১৭ মিনিট খেলা শেষে চকরিয়ার জীবন বলীকে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করেন খেলার রেফারি মো. আবদুল মালেক। ফাউল করার কারণে চ্যাম্পিয়নের শিরোপা থেকে ছিটকে পড়েন কুমিল্লার শাহজালাল বলী।

বলী খেলায় জয়ী হবার পর উৎসুক জনতার সামনে দু’হাত তুলে অভিবাদন জানান জীবন বলী। এর আগে সেমিফাইনালে মহেশখালীর মোহাম্মদ হোসেনকে হারিয়ে কুমিল্লার শাহজালাল বলী, উখিয়ার জয়নাল বলীকে হারিয়ে চকরিয়ার আরিফুল ইসলাম জীবন বলী ফাইনালে উন্নীত হন।

এবার ১০৯তম আসরে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, রাঙামাটি, কুমিল্লাসহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে শতাধিক বলী অংশ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন আবদুল জব্বার স্মৃতি কুস্তি প্রতিযোগিতা ও বৈশাখী মেলা কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী।
গতকাল বুধবার বিকেল চারটা থেকে নগরীর লালদীঘি মাঠে শুরু হয় বলীখেলা। ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা নিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে শতাধিক বলী আবদুল জব্বারের বলীখেলায় অংশ নিতে আসেন। বলীখেলা এক নজর দেখতে লালদীঘি মাঠ ঘিরে উৎসুক জনতার ঢল নামে।

জব্বারের বলীখেলার উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মাসুদ উল হাসান। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বলীখেলার স্পন্সর প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক ডিজিটাল কমিউনিকেশন্স লিমিটেডের রিজিওনাল ডিরেক্টর সৌমেন মিত্র। খেলা পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর আবদুল মালেক। শেষে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ বিজয়ীসহ অন্যান্য বলীর হাতে নগদ অর্থসহ ক্রেস্ট তুলে দেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

উল্লেখ্য যে, ২০১৭ সালে আবদুল জব্বারের বলীখেলার ১০৮ তম আসরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের ৭০জন বলী অংশ নেন। এতে প্রাথমিক পর্বে জয়ী হন ৩৩জন বলী। পরবর্তীতে চূড়ান্ত পর্বে উখিয়ার শামছু বলীকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন রামুর দিদার বলী।

২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত ১০৭তম আসরে জব্বারের বলীখেলার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াইয়ে রামুর দিদার বলী ও উখিয়ার শামছু বলী কেউ কাউকে নির্ধারিত সময়ে হারাতে না পারায় সিলেকশন পদ্ধতিতে শামছু বলীকে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয়েছিল।

প্রিন্স, ঢাকা