খাদ্য গুদামগুলোকে অনলাইনের আওতায় আনা হবে: খাদ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার:  খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, সরকারি খাদ্য গুদামগুলোকে শীঘ্রই অনলাইনের আওতায় আনা হবে যাতে ঢাকায় বসে খাদ্য গুদামগুলোতে নজরদারি করা যায়।

মন্ত্রী বুধবার ঢাকায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট অভ্ বাংলাদেশ অটো মেজর অ্যান্ড হাসকিং মিল মালিক সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভায় একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, এখন চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে আছে। আশা করি এমনটিই থাকবে। যদি কেউ বাজার অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করে তবে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপস্থিত মিলাররা কালো তালিকাভুক্ত মিলারদের নাম প্রত্যাহার করার অনুরোধ জানালে মন্ত্রী বলেন, গতবছর অকাল বন্যার কারণে ব্যাপক ফসলহানি ঘটায় বেশিরভাগ মিলার সরকারকে চাল দেয়নি। যার ফলশ্রুতিতে গতবছর চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা যায়নি। এবার ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে।

সবার স্বার্থের কথা চিন্তা করে কালো তালিকাভুক্তদের নাম প্রত্যাহার করা হবে। হাসকিং থেকে অটো রাইস মিলে রূপান্তরের জন্য তিনি সকল মিলারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, দেশ প্রতিটি সেক্টরে এগিয়ে যাচ্ছে। তাই দেশে শুধু অটো রাইস মিল থাকবে। সেই টার্গেট নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে সরকারের এ উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন রাখতে মন্ত্রী সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ অটো মেজর অ্যান্ড হাসকিং মিল মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ আব্দুর রশিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ ওমর ফারুক, খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বদরুল হাসান, খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ ইউনিটের মহাপরিচালক বদরুল আরেফিনসহ বাংলাদেশ অটো মেজর অ্যান্ড হাসকিং মিল মালিক সমিতির সদস্যবৃন্দ।