সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ বিতরণ করলেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন আজ ঢাকা মহানগরীর ৬টি শহর সমাজসেবা কার্যালয়ের ৫৭৮ জন সেবাগ্রহীতার মধ্যে মোট ১ কোটি ২৫ লাখ টাকার সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ বিতরণ করেন।

ঢাকার আগারগাঁওয়ে সমাজসেবা অধিদফতর কার্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মন্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সরকারি সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ সেবাসহ নানা বিষয়ে সুবিধার কথা তুলে ধরেন। তিনি এসময় ক্ষুদ্রঋণ নিয়ে বেসরকারি কিছু সংস্থার মাসিক কিস্তি আদায়ের নানা অপকৌশলের কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশের ক্ষুদ্রঋণ নিয়ে যদিও এখন গোটা বিশ্ব  অবগত কিন্তু সেই ক্ষুদ্রঋণ এই দেশের মানুষের জন্য কতটা সুখের আর কতটা দুঃখের তা বিশ্ববাসী কখনো জানতে পরেনি। বিশ্ব কেবল দেখে ক্ষুদ্রঋণের বাইরের আবরণ, ভিতরের কালো অন্ধকারকে দেখতে পায় না।

ক্ষুদ্রঋণের কিস্তি প্রসঙ্গে এনজিওদের কর্মকাণ্ড দানবীয় আচরণের মতো উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এনজিওরা মাসিক কিস্তি তুলতে গিয়ে দেশের গরিব মানুষকে তাদের ভিটেমাটি ছাড়া করতেও দ্বিধা করে না; এমনকি তারা ঘরের টিন পর্যন্ত খুলে নিয়ে আসে। গরিবের এই কষ্টের কথা বিশ্ব মিডিয়া জানতে পারে না’।

মন্ত্রী সরকারি সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণের ঋণ সুবিধা নিতে সকলকে উৎসাহিত করে বলেন, ১৯৭৪ সালে বঙ্গবন্ধু প্রথম সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রথা চালু করেছিলেন। আজ সরকার শত শত গরিব মানুষকে ক্ষুদ্রঋণ প্রদান করছে। গরিব মানুষেরা যাতে তাদের আত্মকর্মসংস্থান করে নিতে পারে সে লক্ষ্যে সরকার ১ লাখ টাকা পর্যন্ত সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রদানের ব্যবস্থা করবে। যদি ঋণ ফেরত দেওয়ার ব্যাপারে সুবিধাভোগীরা আন্তরিক থাকে তাহলে এই ঋণ যাতে ১ কোটি টাকা পর্যন্ত হয় তা নিয়ে সরকার ভবিষ্যতে কাজ করবে।

সমাজসেবা অধিদফতরের মহাপরিচালক গাজী মুহাম্মদ নুরুল কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত সচিব ও অধিদফতরের পরিচালক আবু মোহাম্মদ ইউসুফ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অধিদফতরের পরিচালক জুলিয়েট বেগম ও মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন, বাংলাদেশ সমাজসেবা অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি মোঃ ইকবাল হোসেন খান এবং মহাসচিব মোঃ সাফায়েত হোসেন তালুকদার।