টানা চতুর্থবারের মতো বার্সেলোনা চ্যাম্পিয়ন

নিউজ ডেস্ক: টানা চতুর্থবারের মতো কোপা দেল রের চ্যাম্পিয়ন হলো বার্সেলোনা। জিতল এ আসরে ৩০তম শিরোপা। আর চ্যাম্পিয়ন হওয়ার রাতে গোল উৎসব করল কাতালানরা। ম্যাচে জোড়া গোল করলেন লুইস সুয়ারেজ। জালে বল পাঠানোর পাশাপাশি সতীর্থদের গোলে অবদান রাখলেন লিওনেল মেসি। আলো ছড়ালেন আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা ও ফিলিপ কটিনহোরা। শনিবার রাতে ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানোর ফাইনালে ৫-০ গোলে জেতে বার্সেলোনা।

ম্যাচটা বলতে গেলে প্রথমার্ধেই হেরে বসে সেভিয়া। উরুগুয়ের তারকা সুয়ারেজের জোড়া গোল ও মেসির গোলে প্রথমার্ধে ৩-০ তে লিড নেয় বার্সেলোনা। দ্বিতীয়ার্ধে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা ও কটিনহোর পা ছুঁয়ে আসে আরও দুই গোল। এ আসরে বার্সেলোনা ধরাছোঁয়ার বাইরে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৩ বার এ শিরোপা জিতেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। টানা চতুর্থবারের মতো কোপা দেল রের শিরোপা জিতে রিয়াল মাদ্রিদ ও অ্যাথলেটিকো বিলবাওয়ের রেকর্ড স্পর্শ করল বার্সেলোনা।

১৯০৫ থেকে ১৯০৮ সাল পর্যন্ত প্রথম দল হিসেবে টানা চারটি শিরোপা জিতেছিল রিয়াল। ১৯৩০ থেকে ১৯৩৩ পর্যন্ত টানা চারবার শিরোপা উৎসব করেছিল বিলবাও। ম্যাচের ৩১ মিনিটে গোল করে নতুন কীর্তি গড়েছেন লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন জাদুকর কোপা দেল রের পাঁচটি আসরের ফাইনালে গোল করার রেকর্ড গড়েছেন। দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে এ রেকর্ড গড়েছেন মেসি। এর আগে ১৯৪২ থেকে ১৯৫০ সালের ভেতরে টেলমো জারা আটটি গোল করেছিলেন। ২০১১ সালের পর প্রথমবারের মতো কোনো ফাইনালে গোল পেলেন আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা। সেভিয়ার বিপক্ষে ৫২ মিনিটে গোল করেন ইনিয়েস্তা।

তবে সবাইকে ছাপিয়ে সুয়ারেজ ছিলেন দুর্দান্ত। বার্সেলোনার হয়ে ফাইনাল ম্যাচ মানেই লুইস সুয়ারেজের গোল। এবারও সেই রেকর্ড ধরে রাখলেন সুয়ারেজ। সেভিয়ার বিপক্ষে গোল করে ফাইনালে বার্সেলোনার হয়ে সব প্রতিযোগিতার ফাইনালে গোল করার রেকর্ড ধরে রেখেছেন তিনি। এর আগে চ্যাম্পিয়নস লিগ, সুপার কাপ, ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ এবং সুপারকোপা কাপে গোল পেয়েছেন সুয়ারেজ। ফাইনালে অন্তত একটি বিষয় নিশ্চিত হয়েছে, ভালভার্দের দল সবসময় মেসির ওপরই নির্ভরশীল নয়। যদিও ম্যাচে যথারীতি আর্জেন্টাইন এই তারকা ছিলেন স্বমিহায় উজ্জ্বল। তবে ম্যাচটি শুধু মেসিময় ছিল না।