রাজনীতিবিদ লেনিন জ্ঞান ও কর্মকে একসঙ্গে মিলিয়েছেন

নিউজ ডেস্ক: রাজনীতিক ও লেখক নূহ-আলম-লেনিনকে নিয়ে ‘আলোচনামূলক গ্রন্থ’ এর প্রকাশনা অনুষ্ঠান হয়ে গেল গতকাল মঙ্গলবার বিকালে। দিনটি ছিল নূহ-আলম-লেনিনের ৭১তম জন্মদিন। জন্মদিনের আনন্দ আর বই প্রকাশনা অনুষ্ঠান একাকার হয়ে উত্সবে পরিণত হয়েছিল অনুষ্ঠানটি। ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হন লেখক।

বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র মিলনায়তনে কবি অসীম সাহা সম্পাদিত ‘বহুমাত্রিক একলব্য লেখক নূহ-উল-আলম লেনিন’ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বইটি প্রকাশ করেছে প্রকাশনী প্রতিষ্ঠান অনন্যা। বইটিতে লেখকের সকল লেখার মূল্যায়ন, সমালোচনা উঠে এসেছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের সভাপতি অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ। গ্রন্থটি নিয়ে আলোচনা করেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ও নগরবিদ অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, জাতীয় কবিতা পরিষদের সভাপতি কবি মুহাম্মদ সামাদ, বইটির সম্পাদক কবি অসীম সাহা, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী বুলবুল মহালনবীশ, প্রকাশনী প্রতিষ্ঠান অনন্যা’র প্রকাশক এবং জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির নির্বাহী পরিচালক মনিরুল হক। নূহ-উল-আলম লেনিনের কবিতা আবৃত্তি করেন ভাস্বর বন্দ্যোপাধ্যায়।

অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেন, নূহ-উল-আলম লেনিন বহুমাত্রিক। তিনি রাজনীতির সঙ্গে লেখালেখিকে সহাবস্থানে নিয়ে আসতে পেরেছেন। অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বলেন, বইটি ব্যতিক্রমী। তাকে নিয়ে স্তুতিমূলক লেখা নয় বরং তার লেখার সমালোচনামূলক আলোচনা উঠে এসেছে বইটিতে। কবি মুহাম্মদ সামাদ বলেন, নূহ-আলম-লেনিন একজন ‘দেশকর্মী’। তিনি জ্ঞান ও কর্মকে একসঙ্গে মিলিত করতে পেরেছেন।

নূহ-উল-আলম লেনিন বলেন, বিপ্লব করে জীবন কাটাবো এটাই আমার জীবনের লক্ষ্য। আওয়ামী লীগের যোগদানের পরেও আমি জননেতা হওয়ার দিকে, নির্বাচনের পথে যাইনি। আমি বরং লেখালেখির দিকে পথচলা শুরু করেছি।

বইটির সম্পাদক কবি অসীম সাহা বলেন, বাংলা সাহিত্যের পরম্পরাকে ধারণ করে সাহিত্য রচনা করে চলেছেন। বইটিতে ৩৩টি রচনা স্থান পেয়েছে। এর মধ্যে লিখেছেন যতীন সরকার, মোহাম্মদ জামির হোসেন, মুনতাসীর মামুন, রতনতনু ঘোষ, কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী, বিশ্বজিত্ ঘোষ, জাকির তালুকদার, স্বকৃত নোমান, পিয়াস মজিদ। বইটির দাম ৪০০ টাকা।