যৌন হেনস্থা নিয়ে মুখ খুললেন অলিম্পিক স্বর্ণজয়ী সিমোন

নিউজ ডেস্ক: রিও অলিম্পিকে যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে চারটি স্বর্ণ আর একটি বোঞ্জ পদক জয় করেছিলেন সিমোন বেলিস। সম্প্রতি চারবারের এই অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন বলেছেন, দলের সাবেক চিকিৎসক ল্যারি নাসের তাকে যৌন হেনস্থা করেছিলেন। টুইটারে ‘#মি ঠু’ ট্যাগের মাধ্যমে তিনি এ তথ্য জানান। তিনি বলেছেন, ‘তাই বলে খেলাখুলার জন্য তার ভালোবাসা আর আনন্দ কেড়ে নিতে পারেননি।’

সিমোন বলছেন, ‘এই ভোগান্তির কথা বর্ণনা করা কঠিন। এটা আমার জন্য আরও কষ্টকর হয়, যখন ২০২০ সালের টোকিও অলিম্পিকের প্রস্তুতির জন্য আমার সেই প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে আসতে হয়, যেখানে আমি যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছি।’

‘আমি এই খেলাকে খুব ভালোবাসি এবং আমি কখনোই এটি ত্যাগ করে যাবো না। আমি কোন ব্যক্তিকে বা যারা তাকে প্রশ্রয় দিয়ে দিয়েছে তাদের এই সুযোগ দেবো না, যাতে তারা আমার ভালোবাসা আর আনন্দকে চুরি করতে পারে’, বলছেন সিমোন বেলিস।

শিশু যৌনতার ছবি সংরক্ষণ করা আর জিমন্যাস্টিকদের হয়রানি করার অভিযোগে এর মধ্যেই অবশ্য ল্যারি নাসেরের ৬০ বছরের কারাদণ্ড হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে। তার বিরুদ্ধে চিকিৎসার নামে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছেন আরও তিনজন মার্কিন অলিম্পিয়ান, যাদের মধ্যে রয়েছেন স্বর্ণজয়ী গ্যাবি ডগলাসও।