বৈশাখের উদযাপনে বৃষ্টির বাগড়া

নিউজ ডেস্ক: বাংলা নববর্ষের প্রথম দিন পহেলা বৈশাখের উদযাপন শনিবার সকালে দারুণভাবেই শুরু হয়েছিল। রোদেলা দিনে মানুষ ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়েই উদযাপন করছিল তাদের প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। রাজধানীর বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার হাজার মানুষ রমনা পার্ক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জড়ো হয়ে মেতে উঠেছিল উৎসবে। তবে শেষ বেলায় কালবৈশাখী ঝড় এবং সেই সঙ্গে বৃষ্টির বিড়ম্বনায় শেষ হয় উৎসব।

শনিবার বিকেল ৪টা অবধি বেশ রোদ ঝলমলে ছিল দিনটি। বলা ভালো, ওই সময় পর্যন্ত গরমে মানুষকে রীতিমতো ঘামতে হয়েছে। আর ওই সময় পর্যন্ত আকাশে মেঘের কোনো চিহ্নও ছিল না। পহেলা বৈশাখের অনেক আয়োজনই তখন পুরোদমে চলছে।

তবে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকেই বদলে যেতে শুরু করে আবহাওয়া। এর পরপরই শুরু হয় কালবৈশাখী ঝড়, সঙ্গে বৃষ্টি। আর তাতেই শেষ হয় রাজধানীবাসীর এবারের পহেলা বৈশাখ উদযাপন।

শেষ বেলায় ঝড় ও বৃষ্টির বাগড়ায় ভাটা পড়ে উৎসবের আমেজে— ফোকাস বাংলা
হঠাৎ ঝড় ও বৃষ্টিতে রাস্তায় থাকা মানুষ বিপাকে পড়ে যায়। বৃষ্টি থেকে বাঁচতে এ সময় অনেককে আশ্রয়ের খোঁজে দৌঁড়াতে দেখা যায়। সন্ধ্যা ৭ পর্যন্ত চলা বৃষ্টির কারণে শেষ বেলায় পহেলা বৈশাখের অনেক আয়োজনই ভেস্তে যায়। সন্ধ্যা ৭টার দিকে বৃষ্টি থামার পর বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নেওয়া মানুষ যার যার বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত রাজধানীতে ৩০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

এছাড়া শনিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে।