বাংলাদেশ হাইকমিশনের উদ্যোগে ইসলামাবাদে বাংলা নববর্ষ উদযাপন

স্টাফ রিপোর্টার: যথাযথ আনন্দ উৎসব ও সমারোহের মধ্যদিয়ে আজ পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে বাংলাদেশ হাইকমিশনের উদ্যোগে পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষ ১৪২৫ উদযাপন করা হয়। বর্ষবরণ উপলক্ষে চ্যান্সারি ভবন ও প্রাঙ্গণকে আল্পনা এঁকে এবং রঙ্গীন কাগজ, ফুল ও ব্যানার দিয়ে মনোরম সাজে সাজানো হয়।

প্রবাসি বাংলাদেশি, শিক্ষার্থী এবং মিশনের কর্মকর্তা কর্মচারি ও তাঁদের পরিবারের সদস্যবৃন্দ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালায় যোগ দেন।

পাকিস্তানে বাংলাদেশের হাইকমিশনার তারিক আহসান অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করেন। আমন্ত্রিত অতিথিদের বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে স্বাগত বক্তব্যে তিনি বাংলা সনের উৎপত্তি ও নববর্ষ পালনের প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠান এখন বাঙ্গালীর সবচেয়ে বড় ও সর্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে।

বিগত বছরের সকল দুঃখ গ্লানি মুছে দিয়ে জাতি, ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে জনগণের মধ্যে সম্প্রীতি এবং একতা প্রতিষ্ঠায় পহেলা বৈশাখ উদযাপন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে হাইকমিশনার অভিমত প্রকাশ করেন।

‘এসো হে বৈশাখ এসো এসো’ বৈশাখি সংগীত পরিশেনের মধ্য দিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয়। বাংলাদেশের লোকসংস্কৃতি তুলে ধরে দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বাংলাদেশি শিশুরা কয়েকটি নৃত্য, সংগীত এবং আবৃত্তি পরিবেশন করে। এছাড়া অনুষ্ঠানে কয়েকটি ম্যাজিকও প্রদর্শন করা হয়।

দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার শুরুতে অতিথিদের বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী পিঠা , জিলাপি, পেয়াঁজু ও ঝালমুড়ি পরিবেশন করা হয়। এছাড়া, অনুষ্ঠান শেষে অতিথিদের ভাত মাছ, গোস্ত, সবজিসহ হরেক পদের ভর্তা ও অন্যান্য দেশীয় খাবার দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়।