ঈশ্বরদীতে স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্তকারি সেই বখাটে যুবক গ্রেফতার

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি: ঈশ্বরদীতে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় দশম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে প্রকাশ্যে উত্ত্যক্ত করার ঘটনায় সেই বখাটে যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (৯এপ্রিল) দুপুরে পৌর শহরের দড়িনারিচা এলাকা থেকে বখাটে নাদিম (২২) কে গ্রেফতার করে ঈশ্বরদী থানা পুলিশ। সে শহরের পশ্চিমটেংরী কাচারিপাড়া এলাকার মোস্তফার ছেলে।

পুলিশ, ছাত্রীটির পরিবার ও এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা জানান, রোববার (৮ এপ্রিল) সকালে ছাত্রীটি প্রাইভেট পড়ার জন্য নিজ মহল্লার রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল। এমন সময় এক যুবক পেছন দিক থেকে রাস্তায় প্রকাশ্যে তাকে জাপটে ধরে উত্ত্যক্ত করে। ছাত্রীটি আতঙ্কে চিৎকার দিয়ে উঠে। এ সময় উপস্থিত মহল্লার এক গৃহবধূ ‘ধর ধর’ বলে প্রতিরোধের জন্য এগিয়ে এলে বখাটে যুবক পালিয়ে যায়। ছাত্রীটি কাঁদতে কাঁদতে বাড়িতে ফিরে যায়। ওই ছাত্রীর মা তৎক্ষনাত ঈশ্বরদী থানার ওসিকে বিষয়টি মুঠোফোনে জানান।

ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিম উদ্দিন বলেন, সোমবার দুপুরে ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ জহুরুল হক স্যারের নেতৃত্বে ওই অভিযান পরিচালনা করে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। বখাটে যুবক নাদিমকে নারী-শিশু নির্যাতন মামলায় আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ঈশ্বরদী সার্কেল) জহুরুল হক বলেন, রোববার সকাল ৮টার সময় ঈশ্বরদীর সাঁড়া মড়োয়ারী স্কুল এ্যান্ড কলেজের এক ছাত্রী তার বাড়ি থেকে প্রাইভেট পড়তে যাচ্ছিল। এসময় ঈশ্বরদী শহরের দড়িনারিচা এলাকার ওই ছাত্রীকে জাপটে ধরে প্রকাশ্যে শ্লীতাহানি করেন বখাটে নাদিম। পরে স্থানীয়রা এস স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করলেও বখাটে নাদিমকে তারা ধরতে পারেনি। বখাটে নাদিমকে আজ সোমবার দুপুরে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গতকাল রবিবার (৮ এপ্রিল ) সকালে স্কুল ছাত্রী নিজ মহল্লা (দরিনারিচা) দিয়ে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় এক বখাটে যুবক পেছন থেকে তাকে জাপটে ধরে। স্কুল ছাত্রী আতংকে চিৎকার দিলে মহল্লার লোকজন ছুটে এলে যুবক দৌড়ে পালিয়ে যায়। এঘটনার পর স্কুল ছাত্রী কাঁদতে কাঁদতে বাড়িতে ফিরে আসে।

প্রিন্স, ঢাকা