ধূমপান ও মাদক বিরোধী প্রচারাভিযান অনুষ্ঠিত

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ায় সর্বশ্রেণীর মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য ধূমপান ও মাদক বিরোধী প্রচারাভিযান অনুষ্ঠিত হয়েছে। কুষ্টিয়া শহরতলী বটতৈল ইউনিয়নের কদমতলায় সাফ‘র আয়োজনে সাংবাদিক অর্পণ মাহমুদের পরিচালনায় এলাকার সর্বশ্রেণীর মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য ধূমপান ও মাদক বিরোধী প্রচারাভিযান অনুষ্ঠিত হয়।

সাফ‘র নির্বাহী পরিচালক ও জেলা তামাক নিয়ন্ত্রণ টাস্কফোর্স কমিটির সদস্য মীর আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ধূমপান ও মাদক বিরোধী আন্দোলন পরিবার থেকে শুরু করতে হবে। “আমাদের বাসা-বাড়ী ধূমপানমুক্ত” ঘোষণা করতে হবে এবং বাসায় ঠোকার প্রধান ফটকে তা লিখে রাখতে হবে।

পরিবারের মানুষ বা অভিভাবক সচেতন না হলে তাদের দায়িত্ববোধ জাগ্রত না হলে, শুধু আইন এবং আইন প্রয়োগকারী বাহিনীর উপর নির্ভর করলে কখনোই ধূমপান ও মাদকমুক্ত সমাজ বা পরিবার গড়ে উঠবে না, এমনকি নিয়ন্ত্রণ করাও সম্ভব হবে না। আসুন পরের সন্তানকে নিজের সন্তান মনে করি, পরবর্তী প্রজন্মকে সুস্থ্য ও স্বাভাবিক ভাবে বেড়ে উঠার উপযুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করি। পরোক্ষ ধূমপানের ক্ষতি হতে পরিবার ও সমাজের লোকদের রক্ষা করি।

পাবলিক পে¬স ও পরিবহনে ধূমপান দন্ডনীয় অপরাধ এবং আইন অমান্যে জরিমানা ৩’শ টাকা। আলোচনা শেষে উপস্থিত সবাইকে ধূমপানের ক্ষতি সর্ম্পকিত সচিত্র সর্তকবানী সম্বলিত লিফলেট ও স্টিকার বিতরণ করা হয় এবং বলা হয় আসুন আমরা সবাই প্রত্যয় ব্যক্ত করি “ধূমপান ও মাদকমুক্ত পরিবার, হোক আমাদের অঙ্গিকার”।

ধূমপান নেশার জগতের প্রবেশদ্বার আর মাদক অপরাধ জগতের প্রবেশদ্বার। পরোক্ষ ধূমপানের ক্ষতি হতে রক্ষা করতে এবং অপ্রাপ্ত বয়স্করা যাতে ধূমপান না করে, সেই জন্য সরকার ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ আইন প্রণয়ন করেছে। তাতে ১৮ বছরের নিচে কোন ব্যক্তির নিকট সিগারেটসহ তামাকজাত দ্রব্য বিক্রয় করা নিষেধ এবং বিক্রেতাও বানানো যাবে না। আইন অমান্যে জরিমানা ৫ হাজার টাকা সত্বেও এই আইন কার্যকর হচ্ছে না।

প্রিন্স, ঢাকা