জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস ২০১৮

স্টাফ রিপোর্টার: ‘ঐতিহ্যের ভিত্তি ধরি, দেশের ছবি রক্ষা করি’ শ্লোগানকে সামনে রেখে উদযাপিত হতে যাচ্ছে জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস ২০১৮। তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু দিবসটি উপলক্ষে চলচ্চিত্র অঙ্গণের সকল শিল্পী-কলাকুশলী, প্রযোজক, নির্মাতা, পরিচালক, পরিবেশক ও প্রদর্শকসহ চলচ্চিত্রমোদী সকল দর্শককে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

৩ এপ্রিল মঙ্গলবার সকাল ন’টায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি) চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্প অর্পণের মাধ্যমে দিবসটির সূচনা করবেন তথ্যমন্ত্রী। তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ কে এম রহমত উল্লাহ এমপি, কমিটি সদস্য সুকুমার রঞ্জন ঘোষ এমপি এবং তথ্যসচিব আবদুল মালেকসহ চলচ্চিত্র অঙ্গণের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ পুষ্প অর্পণে যোগ দেবেন।

উল্লেখ্য, ১৯৫৭ সালের ৩ এপ্রিল তদানীন্তন প্রাদেশিক পরিষদে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু উত্থাপিত বিলের মাধ্যমেই ঢাকায় চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠিত হয়, সূচনা হয় এদেশের চলচ্চিত্রের প্রাতিষ্ঠানিক যাত্রা। সে ঐতিহাসিক অধ্যায় স্মরণেই ২০১২ সনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনটিকে জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস ঘোষণা করেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্প অর্পণের পরপরই বিএফডিসি চত্বরে রয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস উদযাপন কমিটি আয়োজিত চলচ্চিত্র দিবসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও র‌্যালি।

বিকাল তিনটায় বিএফডিসির আট নম্বর সুটিং ফ্লোরে ‘বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের সমস্যা ও সংকট উত্তরণের উপায়’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। সেমিনারের পর থাকছে জনপ্রিয় শিল্পীদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এছাড়াও বিএফডিসি চত্বর ও এর বিভিন্ন ফ্লোরে রয়েছে দিনব্যাপী মেলা, টক-শো, লাল গালিচা সম্বর্ধনা, স্থিরচিত্র ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী। তথ্যমন্ত্রী এ দিবসের সকল অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্র অঙ্গণের সকলকে ও চলচ্চিত্রপ্রিয় দর্শকদের সানন্দে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন।