খালেদা জিয়া সুস্থ আছেন : নাসিম

নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালোা জিয়া সুস্থ আছেন, ভাল আছেন। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের দিয়ে চেকআপের পর বেগম খালেদা জিয়ার বড় কোন অসুস্থতা পাওয়া যায়নি।
আজ রোববার দুপুরে ডিপ্লোমা ইঞ্জনিয়ার্স ইনস্টিটিউড মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু একাডেমি ঢাকা মহানগর শাখা আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ নেতা ও প্রায়ত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

সংগঠনের সভাপতি হুমায়ুন কবির মিজির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এডভোকেট আবদুল বাসেত মজুমদার, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আখতার হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘খালেদা জিয়া কারাগারে আছেন এটা খুবই দুঃখজনক। তার অসুস্থ হওয়ার ঘটনায় আমরা সবসময় সমবেদনা দেখিয়েছি। দুদিন আগে ঢাকা সিভিল সার্জেনের নেতৃত্বে তিনজনের একটি টিম তাকে দেখতে গিয়েছেন। তার সঙ্গে দেখা করেছেন। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের দিয়ে চেকআপের পর বেগম খালেদা জিয়ার বড় কোন অসুস্থতা পাওয়া যায়নি।’

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া জেলখানায় সুস্থ আছেন জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা সব সময় তার খবর রাখছি। সরকারের পক্ষ্য থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। খালেদা জিয়া সুস্থ আছেন, ভাল আছেন। অযথা মিথ্যা গুজোব ছড়াবেন না। গুজোব ছড়িয়ে কোন লাভ হবে না।
আগামী সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ভোট চাওয়া নিয়ে সমালোচনা না করে বিএনপিকে জনগণের কাছে ভোট চাওয়ার পরামর্শ দিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘আমরা ভোট কেন চাইবো না? সবারই অধিকার আছে ভোট চাওয়ার। বিএনপিও ভোট চাইতে পারে। আমাদের কোন সমস্যা নেই। আমরা সারা বছর ভোট চাইতে পারি।’
তিনি বলেন, ‘আমরা নৌকায় ভোট চাইবো। আপনারা আপনাদের দলীয় প্রতীক ধানের শীষে ভোট চান। ভোট চান না কেন? নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ করুন, কারণ জাতীয় নির্বাচন ঘরের দুয়ারে।’

তিনি বলেন, নির্বাচন এলেই কেবল জনগণের কাছে যাব, ভোট চাইবো, এটাতো কথা হতে পারে না। শুধু নির্বাচনের আগে তিন মাস কেন সারাবছর সব সময়, সবাই ভোট চাইতে পারে। শুধু সংবাদ সম্মেলন করে মিথ্যা কথা না বলে মানুষের কাছে গিয়ে ভোট চান। কেউ তো আপনাদের ভোট চাইতে মানা করেনি।

জিল্লুর রহমানের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, আজীবন জিল্লুর রহমান বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে গেছেন। জীবনের শেষদিন পর্যন্ত তিনি মেহনতী মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করেছেন। স্বাধীনতার স্বপক্ষের রাজনীতিতে জিল্লুর রহমান এক চির স্মরণীয় রাজনীতিবিদের নাম। ত্যাগী রাজনীতিবিদ জিল্লুর রহমান বাঙালির হৃদয়ে চির সমুজ্জ্বল হয়ে থাকবে।