বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় ক্ষতিপূরণ দিচ্ছে সাধারণ বীমা কর্পোরেশন

নিউজ ডেস্ক: নেপালে ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের ঘটনায় রবিবার বিকেলে সেনা কল্যাণ ইন্স্যুরেন্সকে বীমা দাবির অংশ হিসেবে ৭ লাখ মার্কিন ডলার দেবে সাধারণ বীমা কর্পোরেশন।

বীমা দাবির চেক প্রদানের সময় উপস্থিত থাকবেন সাধারণ বীমা কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামসহ সাধারণ বীমা কর্পোরেশন ও সেনা কল্যাণ ইন্স্যুরেন্সের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

ইউএস বাংলার বীমা করা ছিল সেনা কল্যাণ ইন্স্যুরেন্সে। আর সেনা কল্যাণ পুনঃবীমা করেছিল সাধারণ বীমা কর্পোরেশনে। তারই আওতায় বীমা দাবির অংশ পরিশোধ করছে সাধারণ বীমা। সাধারণ বীমা কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সৈয়দ শাহরিয়ার আহসান বিষয়টি জানিয়েছেন।

এর আগে ২৪ মার্চ শাহরিয়ার আহসান জানিয়েছিলেন, ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্তে ক্ষতিপূরণ বাবদ কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষ ৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার বীমা দাবি পাবে। প্রতি ডলার ৮৩ টাকা হিসাবে এ অর্থের পরিমাণ দাঁড়াবে ৫৮ কোটি ১০ লাখ টাকা।

গত ১২ মার্চ ৭১ জন আরোহী নিয়ে নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয় ইউএস-বাংলার একটি উড়োজাহাজ। এতে ২৬ বাংলাদেশিসহ ৫১ জন নিহত হন।

শাহরিয়ার আহসান জানান, প্রত্যেক যাত্রীর জন্য ২ লাখ ইউএস ডলার বীমা করা। তবে যাত্রীরা এ পরিমাণ ক্ষতিপূরণ পাবেন না। নিহতের পরিবার বা আহতরা বীমা দাবি বাবদ কত টাকা পাবেন তা তাদের বয়স, আর্থিক ও সামাজিক মর্যাদাসহ আর কিছু বিষয়ের ওপর নির্ভর করছে।

সাধারণ বীমা কর্পোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা সুপ্রতিভ হালদার জানান, বীমা দাবির অংশ হিসেবে বিকেলে ৭ লাখ মার্কিন ডলার পরিশোধ করবে সাধারণ বীমা কর্পোরেশন।