বাংলাদেশ-লাওস ফুটবল ম্যাচ ড্র

নিউজ ডেস্ক: প্রায় দেড় বছর পর প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে মাঠে নেমে ড্র করেছে বাংলাদেশ। লাওসের সঙ্গে লড়াইয়ে নেমে ২-২ গোলে ড্র করেই মাঠ ছাড়ে লাল-সবুজ জার্সিধারিরা।

খেলার প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ। ডিফেন্ডারদের একের পর এক মারাত্মক ভুলের সুযোগ নিয়ে বাংলাদেশের জালে দু’বার বল জড়ায় লাওসের ফুটবলাররা। ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে এসে সেই ২ গোল শোধ করে নিশ্চিত পরাজয় দুরে ঠেলে দিয়ে মাথা উুঁচু করে মাঠ ছাড়তে পেরেছেন অ্যান্ড্রু ওর্ডের শিষ্যরা।
খেলার ৮২ মিনিট পর্যন্ত বাংলাদেশ পিছিয়ে ২-০ গোলে। নিশ্চিত পরাজয় মেনে নিয়েই মাঠে বসে খেলা দেখছিল বাংলাদেশি সমর্থকরা। ম্যাচের ৩০ মিনিটে প্রথম গোল হজম করে বাংলাদেশ। এরপর প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে (৪৫+২) পেনাল্টি থেকে দ্বিতীয় গোল প্রবেশ করে বাংলাদেশের জালে। অবশেষে ৮২ মিনিটেই জাফর ইকবালের গোলে ব্যাবধান কমায় বাংলাদেশ। ১ গোল শোধ করার পর আরও উজ্জীবিত হয়ে ওঠে খেলোয়াড়রা। যে কারণে ইনজুরি সময়ে (৯০+২ মিনিটে) আবু সুফিয়ান সুফিলের গোলে সমতায় ফেরে লাল সবুজ জার্সিধারিরা।

লাওসের রাজধানী ভিয়েনতিয়েনে ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫টায়।
আন্তর্জাতিক ফুটবলে লাওসের বিরুদ্ধে এর আগে একবার খেলেছে বাংলাদেশ। তাও ঠিক ১৫ বছর আগে। দিনটি ছিল ২০০৩ সালের ২৭ মার্চ। হংকংয়ে অনুষ্ঠিত এএফসি এশিয়ান কাপের বাছাই পর্বের সে ম্যাচটি জিতেছিল লাওস ২-১ গোলে। ফিফা র্যাং কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে লাওস। বাংলাদেশ ১৯৭ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটি ১৮৩।