উন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জন করায় রাবিতে আনন্দ শোভাযাত্রা

রাবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জনে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক সাফল্য অর্জন করায় আনন্দ শোভাযাত্রার আয়োজন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবন চত্ত¡র থেকে জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় একই স্থানে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন।

শোভাযাত্রা শুরুর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান বাংলাদেশের এ অর্জন সর্ম্পকে বক্তব্য দেন। বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘২০০৮ সালের নির্বাচনের পর থেকে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন। এজন্য মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোল (এমডিজি) আমরা অর্জন করতে পেরেছি নির্ধারিত সময়ের আগেই। বাংলাদেশ এখন বিশ্বের কাছে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিত হয়েছে। যার জন্য তিনি বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর এই অর্জন ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণের পূর্বাভাস।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর এই অর্জন সম্ভব হয়েছে তাঁর দক্ষতা, সততা আর দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণেই। তাঁর হাত ধরেই বাংলাদেশ এখন বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাড়াতে সক্ষম হচ্ছে। বাংলাদেশকে এখন কেউ আর নিচু চোখে দেখে না।’

শোভাযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক একেএম মোস্তাফিজুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এমএ বারী, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক জান্নাতুল ফেরদৌস, প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকারসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৮টি বিভাগ, ৩টি ইনস্টিটিউটের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, আবাসিক হলসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য,সম্প্রতি সিঙ্গাপুর ভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘দ্য স্ট্যাটিস্টিকস ইন্টারন্যাশনাল’র জরিপে শেখ হাসিনা বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। যোগ্য নেতৃত্ব, রাষ্ট্রনায়ক, মানবতা, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা বিষয়ে বিশ্ব গণমাধ্যমে সর্বোচ্চ উপস্থিতির জন্য শেখ হাসিনাকে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রীর স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

প্রিন্স, ঢাকা