শাওন হত্যার ১০দিন পর কবর থেকে লাশ উত্তোলণ

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আশফাক আল রাফি শাওনের মরাদেহ দাফনের ১০ দিন পর ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। সোমবার ১৯ শে মার্চ, বেলা অানুমানিক ১২টার সময় জেলার ফুলবাড়িয়া উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের কবর থেকে এ মরদেহ উত্তোলন করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন,ফুলবাড়িয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শিউলি হরি ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতোয়ালি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) পলাশ কুমার রায়। কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল ইসলাম বলেন, আদালতের নির্দেশে মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে নেয়া হয়েছে। এদিকে রোববার (১৮ মার্চ) ময়মনসিংহের ১ নম্বর আমলি আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদুল হক গ্রেপ্তারকৃত জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সঞ্জয় দত্ত, এসএম আরিফুল হক (ওরফে) পিচ্চি আরিফ ও আমিনুল ইসলাম হিমেলের বিরুদ্ধে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত (২৫ শে ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে নগরীতে রহস্য জনকভাবে গুলিবিদ্ধ হন ছাত্রলীগ নেতা শাওন। পরে তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আই,সি,ইউ)ভর্তি করা হয়।অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজধানীর ইবনেসিনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৮ মার্চ দুপুরে মারা যান শাওন। এই ঘটনায় শাওনের বাবা জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এম,এ কদ্দুস মামলা না করে তিনি আল্লাহর কাছে হত্যাকারীদের বিচার জানান। পরবর্তীতে ময়মনসিংহ জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের পাল্টা-পাল্টি সমাবেশ থেকে শাওনের হত্যাকারীদের বিচার দাবি করা হয়। বুধবার (১৪ মার্চ) রাতে কোতোয়ালি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে এ হত্যা কান্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে বৃহস্পতিবার (১৫ মার্চ) দুপুরে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সঞ্জয় দত্ত, এসএম আরিফুল হক ওরফে পিচ্চি আরিফ ও আমিনুল ইসলাম হিমেল আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এসময় কোতোয়ালি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) পলাশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের বিরুদ্ধে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। রবিবার (১৮ মার্চ) দুপুরে ময়মনসিংহের ১ নম্বর আমলি আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদুল হক তাদের তিনজনের বিরুদ্ধে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। একই সঙ্গে ময়নাতদন্তের জন্য মরাদেহ কবর থেকে উত্তোলনের নির্দেশ দেন।

প্রিন্স, ঢাকা