দ্বিতীয় জানাজা সম্পন্ন, মরদেহ হস্তান্তর

নিউজ ডেস্ক: নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় নিহত ২৩ বাংলাদেশির দ্বিতীয় জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। জানাজা শেষে মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

সোমবার বিকেল ৫টা ২৫ মিনিটে আর্মি স্টেডিয়ামে তাদের দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর স্বজনদের কাছে একে একে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়।

এর আগে সকালে কাঠমান্ডুতে বাংলাদেশ দূতাবাসে উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় নিহত ২৩ বাংলাদেশির প্রথম জানাজা সম্পন্ন হয়।

বিকেল ৪টার দিকে বিমানবাহিনীর বিশেষ বিমান কাঠমান্ডু থেকে মরদেহগুলো নিয়ে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। সেখান থেকে মরদেহগুলো অ্যাম্বুলেন্সযোগে আর্মি স্টেডিয়ামে নেওয়া হয়।

আর্মি স্টেডিয়ামে ফুল দিয়ে সাজানো মঞ্চে মরদেহগুলো রাখা হয়। মন্ত্রী, সচিব, সেনাবাহিনীর ঊধ্বর্তন কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতা, আত্মীয়-স্বজনসহ সহস্রাধিক মানুষ জানাজায় অংশ নেন।
গত ১২ মার্চ ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় নিহত ৫১ জনের মধ্যে ২৬ জন বাংলাদেশি; যাদের মধ্যে এখন পর্যন্ত ২৩ জনের মরদেহ শনাক্ত করা গেছে।

পরিচয় শনাক্ত হওয়া ২৩ জন হলেন—বিলকিস আরা, আখতারা বেগম, মো. রকিবুল হাসান, মো. হাসান ইমাম, মিনহাজ বিন নাসির, তামারা প্রিয়ন্ময়ী, মো. মতিউর রহমান, এসএম মাহমুদুর রহমান, তাহারা তানভীন শশী রেজা, অনিরুদ্ধ জামান, রফিক উজ জামান, উম্মে সালমা, আঁখি মনি, নুরুন্নাহার, শাহিন আক্তার নাবিলা, এফএইচ প্রিয়ক, কেএইচএম সাফে এবং পাইলট আবিদ সুলতান, কো-পাইলট পৃথুলা রশীদ, খাজা সাইফুল্লাহ, ফয়সাল, সানজিদা এবং নুরুজ্জামান।