একটি চক্র মুক্তিযুদ্ধের জয় বাংলা শ্লোাগান বদলে দিতে চেয়েছিল: নসরুল হামিদ

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি: বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেছেন, একটি চক্র মুক্তিযুদ্ধের জয় বাংলা শ্লোাগান বদলে দিতে চেয়েছিলো। তারা বাংলাদেশ জিন্দাবাদ শ্লোাগান দেয়। অথচ জিন্দাবাদ পাকিস্তানি শব্দ।

৭৫ থেকে তারা এ ষড়যন্ত্র করে আসছে। শনিবার (১৭ মার্চ) বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার শুভাঢ্যা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯ তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস ,শিশু কিশোর সমাবেশ, চিত্রাঙ্কন ও সাংস্কৃতি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, তাদের উদ্দেশ্য ছিলো বাংলাদেশকে পাকিস্তান রূপান্তরিত করা। তারা বাংলাদেশের ইতিহাস বিক্রিত করতে চেয়েছিলো ।জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে স্বাধীনতা যুদ্ধকরে দেশ স্বাধীন করেছেন তার সুযোগ্য কণ্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি ।আমরা উন্নয়ন করছি স্বাধীনতা বিরোধীরা তা মেনে নিতে পারছে না, তারা আবারও মাথা উচূ করে দাড়াতে চায়, বিভিন্ন ষড়যন্ত্র চলছে ।

আপনারা সকল ষড়যন্ত্রকে রুখে দিয়ে আবার ও নৌকার বিজয় নিশ্চিত করে শেখ হাসিনার হাত কে শক্তিশালী করতে সবাইকে যার যার স্থান থেকে মাঠে ময়দানে কাজ করার জন্য নেতা কর্মীদের আহবান করেন। কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক শাহীন আহমেদের সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ অতিথি ছিলেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহে এলিদ মাইনুল আমিন , শুভাঢ্যা ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন, জিনজিরা ইউপি চেয়ারম্যান সাকুর হোসেন, আগানগর ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর শাহ্ খুশী, বাস্তা ইউপি চেয়ারম্যান হাজী আশকর আলী, কোন্ডা ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক চৌধুরী, হাজী মোঃ ওয়াহেদুজ্জামান মেম্বার, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মিরাজুর রহমান সুমন,যুবলীগ নেতা সামিউল ইসলাম সামু, যুব মহিলালীগ নেত্রী শিলারা ইসলাম, ঢাকা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি এইচ এম মেহেদী হাসান ও শুভাঢ্যা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম হোসেন সোহেল ,সহকারী শিক্ষিকা আঞ্জুমান আরা ।

এছাড়া অভিবাবক ,অভিবাবিকা,সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন । এসময় প্রতিমন্ত্রী ১২০০ শিক্ষার্থীদের মাঝে মুজিব গ্রাফিক নোভেল বই তুলে দেন এবং শিক্ষার্থীদের সাথে ছবি তোলেন।