শাওন হত্যার প্রতিবাদে বিহ্মোভ মিছিল

 

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহে ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আশফাক আল রাফী শাওন ৮মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর একটি প্রাইভেট/বেসরকারী হাসপাতাল (ইবনেসিনায়) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। তার ফল শুত্রুতিতে সংগঠন সহ সর্বত্রই নেমে আসে দূঃখের ছাঁয়া। নানা গুঞ্জন আর চাপা হ্মোভ নিয়ে চলছিল নানা সমালোচনা!

সোমবার১২ মার্চ দুপুর প্রায় ১২টার সময় ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবের সামনে জেলা ছত্রলীগের ব্যানারে একটি বিহ্মোভ মিছিল বের হয়। মিছিলে ব্যক্তারা হত্যার বিচার দাবি করেন। হত্যা কারী যত শক্তি শালীই হোক না কেন তাদের বিচারের আওতায় আনার জোর দাবী জানান।

ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আশফাক আল রাফী শাওন শহরের চৌরঙ্গী মোড়ের এম,এ কুদ্দুছের ছেলে।এম,এ কুদ্দুস ও জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

উল্লেখ্য গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রাতে শহরের জেলা পরিষদের অফিসের সামনে গুলিবিদ্ধ হন আল রাফী শাওন। এরপর স্থানীয়রা তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।কে বা কারা এবং কি কারণে, কিভাবে শাওন গুলিবিদ্ধ হলেন তা নিয়ে কিছুই জানা যায়নি।তার এই মৃত্যুতে একদিকে যেমন ধ্রুবজাল সৃষ্টি হয়েছে অপর দিকে নেতাকর্মীদের মাঝে শোঁকের ছায়া নেমে এসেছে। ময়মনসিংহ পুলিশের ধারনা, অভ্যন্তরীণ দলীয় কোন্দলে শাওনকে গুলি করা হয়ে থাকতে পারে।

প্রিন্স, ঢাকা