কোলরেক্টাল রোগ কী?

নিউজ ডেস্ক: কোলন ও রেক্টামের অংশকে মিলিতভাবে সাধারণত কোলরেক্টাল বলা হয়। এখানে বিভিন্ন রোগ হয়। এগুলোকে সাধারণত কোলরেক্টাল ডিজিস বলে।

কোলরেক্টাল ডিজিসের বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩০৪৩তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. আফরিন সুলতানা। বর্তমানে তিনি হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ এবং সিটি হসপিটাল লিমিটেডের সার্জারি বিভাগের পরামর্শক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : কোলরেক্টাল ডিজিসের মধ্যে কী কী সমস্যা পড়ে?

উত্তর : কোলন ও রেক্টাম বৃহদান্ত্রের অংশ। এখানে বিভিন্ন রোগ হয়। এর সঙ্গে পায়ুতন্ত্র বা মলদ্বারের রোগসহ একসঙ্গে কোলরেক্টাল ডিজিস বলি। অনেক রোগের সমন্বয়ে হয়। এখানে প্রচলিত রোগগুলো আমাদের কাছে নিয়ে আসে, সেগুলো হলো ফিসার বা মলদ্বার ফেটে যাওয়া। এরপর পাইলস। যেটি সব মানুষ খুব সহজেই বোঝেন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে রোগীরা এসে বলেন, আমার পাইলস হয়েছে। অনেকেই বাংলায় একে বলেন অর্শ্ব। এর পর হয় ফিস্টুলা। মলদ্বারের আশপাশে ছিদ্র হয়ে গিয়ে রস পড়তে পারে, পুঁজ পড়তে পারে বা মলও বের হয়ে আসতে পারে।

বাচ্চাদের ক্ষেত্রে কিছু প্রচলিত রোগ থাকে, যেমন—পলিপ। ভেতরে একটি আঙুরের মতো, ছোট টিউমারের মতো থাকে, সেটি বের হয়ে আসে। বাচ্চাদের ক্ষেত্রে ইদানীং ফিসারটাও হতে দেখা যাচ্ছে। সঙ্গে আরেকটি প্রচলিত যে রোগ নিয়ে আসে সেটি হলো কোলরেক্টাল ক্যানসার।