সবেইকে সাথে নিয়েই নির্বাচন করবে সরকার: আইনমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, কাউকে নির্বাচনের বাইরে রেখে নির্বাচন করার ইচ্ছা সরকারের নেই কিন্তু আইনের কারণে কেউ যদি নির্বাচনের বাইরে থাকে সেখানে সরকারের কিছু করার নেই। মন্ত্রী রবিবার ঢাকায় বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে জেলা ও দায়রা জজ এবং সমপর্যায়ের বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের জন্য আয়োজিত ২২তম জুডিশিয়াল এডমিনিস্ট্রেশন ট্রেনিং কোর্সের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতাশেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া আগামী নির্বাচনে যেতে পারবে কি পারবে না এ বিষয়ে উচ্চআদালতের দুই রকম রায় আছে। তাই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিবে সুপ্রিমকোর্ট ও নির্বাচন কমিশন। এখানে সরকারের কোনো ভূমিকা নেই। তিনি বলেন, আদালতে খালেদা জিয়ার সাজা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী তিনি এখন হাইকোর্টে আপিল করতে পারেন। আপিলের পর চাইলে জামিনের আবেদন করতে পারেন। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে আদালত। 

আনিসুল হক বলেন, সময় প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল। সময়ের সাথে মানুষের চাহিদা, আচার আচরণ, দাবিদাওয়াসহ সকল বিষয়ে প্রতিনিয়ত পরিবর্তন ঘটে। এই পরিবর্তনশীল প্রেক্ষাপটে সবাইকে সময়োপযোগী, আধুনিক এবং বৈশ্বিকমানে উন্নীত করার কোনো বিকল্প নাই। 

মন্ত্রী বলেন, বিচার ব্যবস্থায় বিচারপ্রার্থী জনগণ প্রতিনিয়ত নানা রকমের সমস্যা বা দাবিদাওয়া নিয়ে আদালতে হাজির হন। তাছাড়া বিশ্ব বাণিজ্যের দ্বার উন্মোচিত হওয়ায় এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির  মাধ্যমে সংযোগ বৃদ্ধি পাওয়ায় হাজারো রকমের  বিরোধের উদ্ভব হয়।

এ প্রেক্ষাপটে নতুন নতুন বিষয়ে নিজেকে পরিচিত করার জন্য, আইনের জটিল সমস্যাগুলো নিয়ে আলোচনা করে পারস্পরিক বোঝাপড়াকে আরো দৃঢ় করার জন্য প্রশিক্ষণ একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম। বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মাধ্যমে অধস্তন আদালতের বিচারকদের জন্য বিশেষায়িত প্রশিক্ষণ কোর্সের ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।  বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি খোন্দকার মূসা খালেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আইন ও বিচার বিভাগের সচিব আবু সালেহ শেখ মোঃ জহিরুল হক বক্তৃতা করেন।