খালেদাকে কারাগারে রাখা ভয়াবহ প্রতিহিংসার বহি:প্রকাশ: ফখরুল

নিউজ ডেস্ক: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে সাধারণ কয়েদিদের মতো রাখা হয়েছে। তাকে ডিভিশনের কোনও সুবিধাই দেওয়া হয়নি। তিনবারের প্রধানমন্ত্রী ও দেশের অন্যতম বড় একটি রাজনৈতিক দলের প্রধানকে এভাবে কারাগারে সাধারণ কয়েদিদের মতো রাখার ঘটনা ভয়াবহ প্রতিহিংসার বহি:প্রকাশ।

শুক্রবার বিকালে বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশান অফিসে সাংবাদিকদের নিকট তিনি একথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, কিছুক্ষণ আগেই (বিকালে) দলের চেয়ারপার্সনের কাছ থেকে বার্তা পেয়েছি। তাকে একটি নির্জন কক্ষে সাধারন কয়েদিদের মতো রাখা হয়েছে। রায় নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রতিক্রিয়ার সমালোচনা করে তিনি বলেন, ক্ষমতাসীনরা যে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে এটা শুধু লজ্জারই নয়, ন্যাক্কারজনক। আমরা এধরনের আচরণের নিন্দা জানাই।

জামিন প্রসঙ্গ: মির্জা ফখরুল বলেন, দেশের আইন অনুযায়ী জামিন পেতে হাইকোর্টে যেতে হবে। আগামীকাল রবিবার অথবা সোমবারের মধ্যে যদি কাগজপত্র পাওয়া যায় তাহলে আইনি প্রক্রিয়ার কাজ শুরু হবে। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া শুধু বিএনপির চেয়ারপার্সন নন, তিনি ১৬ কোটি মানুষের নেতা। তার রাজনৈতিক জীবনটাই ছিল গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রামের জীবন। তিনি লড়াই করেছেন। উড়ে এসে জুড়ে বসেননি। তিনি জানান, নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে খালেদা জিয়া নিজেই বলে গেছেন সবাই যেন শান্ত থাকেন। তার মুক্তির জন্য বা গণতন্ত্রের জন্য যে আন্দোলন হবে তা যেন হয় শান্তিপূর্ণ ও অহিংস।

তারেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান:সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান দায়িত্ব পালন করছেন। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দল চলবে জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের দলীয় গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বিষয়টি নির্ধারণ করা আছে।