ডোমার উপজেলায় জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৮ অনুষ্ঠিত

 নীলফামারী  প্রতিনিধি: নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৮ এর শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান ও শ্রেষ্ঠ শ্রেনী শিক্ষক নির্বাচিত করা হয়েছে।

২০শে জানুয়ারি ডোমার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ পালিত হয়।উপজেলার বেশি ভাগ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এতে অংশগ্রহন করেন।শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন খেলাধুলার অংশগ্রহনের মধ্যদিয়ে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ বিকালে সমাপ্ত হয়।এবং বিভিন্ন যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে গতকাল রবিবার বিকালে ‘ডোমার উপজেলার-২০১৮ প্রতিষ্ঠান প্রধান, শ্রেনী শিক্ষক, প্রতিষ্ঠান, স্কাউট ও রোভার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিতদের ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

’এবারে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান নির্বাচিত হয় স্কুল পর্যায়ে(মাধ্যমিক) তরনী কান্ত রায়, প্রধান শিক্ষক,পাঙ্গা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।কলেজে মো: শাহিনুল ইসলাম, অধ্যক্ষ, ডোমার মহিলা ডিগ্রী কলেজ।এবং মাদ্রাসায় মাও: শামছুদ্দিন হোসাইনী। শ্রেষ্ঠ শ্রেনী শিক্ষক স্কুল পর্যায়ে বাণেশ্বর রায়, আটিয়াবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়। কলেজ পর্যায়ে আব্দুল্লা জিহাদ,গোমনাতি মহাবিদ্যালয়। এবং মাদ্রাসায় সাহিদা আক্তার বানু।

শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ডোমার বহূমুখি উচ্চ বিদ্যালয়(মাধ্যমিক),ডোমার মহিলা ডিগ্রী কলেজ(উচ্চ মাধ্যমিক) এবং ডোমার ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা(মাদ্রাসা)।শ্রেষ্ঠ স্কাউট ফাহিম আলম,ডোমার বহূমুখি উচ্চ বিদ্যালয়।শ্রেষ্ঠ স্কাউট শিক্ষক বিনয় কুমার রায়,বাগডোকরা নিমোজখানা স্কুল এন্ড কলেজ।

শ্রেষ্ঠ স্কাউট গ্রুপ ডোমার বহূমুখি উচ্চ বিদ্যালয়।শ্রেষ্ঠ রোভার কলেজ পর্যায়ে, ,ডোমার মহিলা ডিগ্রী কলেজের সাদিকা পারভিন কান্তা, শ্রেষ্ঠ রোভার শিক্ষক সৈয়দা মোর্শেদা পারভিন, এবং শ্রেষ্ঠ রোভার গ্রুপ মো: শাহিনুল ইসলাম। উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাকেরিনা বেগম জানান,আমরা অনেক বিষয় বিবেচনা করি, শিক্ষকদের সনদ,মেধা,দক্ষতা,শৃজনশীলতা ইত্যাদির উপর ভিত্তি করে একশত নম্বরের মাধ্যমে শ্রেষ্ঠতা নির্ধারন করা হয়ে থাকে।

তিনি আরও জানান যে উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চিঠি পাঠিয়েছি,মোবাইলে বলেছি কিন্তুু দু:ক্ষের বিষয় অনেক প্রতিষ্ঠান কি কারনে তাদের কাগজ-পাতি জমা করে নাই,তাইযে কাগজ আমার অফিসে জমা হয়েছে তা বিচার বিশ্লেষন করে গতকাল রবিবার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিতদের তালিকা প্রকাশ করি।

প্রিন্স, ঢাকা