ময়মনসিংহে বিয়ের প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় ক্ষুরের আঘাতে কলেজ ছাত্রী হাসপাতালে

ময়মনসিংহ প্রতিবেদক: ময়মনসিংহে বিয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ায় আত্মীয়ের ক্ষুরের আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন এক কলেজছাত্রী। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় শহরের গাঙ্গিনার পাড়ে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সহপাঠীরা ওই কলেজছাত্রীকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। আহত কলেজছাত্রী ময়মনসিংহ শহরের মুমিনুন্নিসা সরকারী কলেজের অর্থনীতি বিভাগে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ছাত্রী। তিনি শহরের গোলকিবাড়ী এলাকায় একটি মেসে থাকেন।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, অপারেশন) খন্দকার শাকের আহমেদ জানান, ওই তরুণী ময়মনসিংহ শহরের মুমিনুন্নিসা সরকারী কলেজে পড়েন। ফুলবাড়িয়া উপজেলার তেজপাটুলি গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে ও মেয়েটির মামাতো ভাই আবুল কাশেম প্রেম বিয়ের জন্য কয়েক বছর ধরে তাঁকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয় কাশেম। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় কৌশলে ডেকে নিয়ে ক্ষুর দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায় কাশেম।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মাহাবুব হোসেন জানান, ওই ছাত্রীর কানের নিচে, বুকে ও হাতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। রক্তক্ষরণ হওয়ায় তাঁকে ক্যাজ্যুয়ালটি ইউনিটে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

চিকিৎসাধীন ওই কলেজ ছাত্রী জানান, দীর্ঘদিন ধরে আবুল কাশেম তাঁকে উত্ত্যক্ত করে আসছে। বিশেষ প্রয়োজনে ২০০ টাকা ধার চেয়ে শুক্রবার বিকেলে তাঁকে শহরের গাঙ্গিনারপাড়ে ডেকে আনে। ডেকে এনে আবারও বিয়ের প্রস্তাব দেয় কাশেম। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে ক্ষুর দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে পালিয়ে যায় কাসেম।

খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) এস এ নেওয়াজী জানান, আহত ছাত্রীকে দেখতে তিনি হাসপাতালে গিয়েছিলেন। তিনি আরো জানান, তাঁরা দুজন পরিচিত এবং তাদের মধ্যে হয়তো সম্পর্ক ছিল। মনোমালিন্য হওয়ায় এমন ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আবুল কাশেমকে পেগ্রারে অভিযান চলছে।

প্রিন্স, ঢাকা