জাতীয় খানা তথ্যভাণ্ডার শুমারি উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘জাতীয় খানা তথ্যভাণ্ডার শুমারি’ উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন :

‘‘জাতীয় খানা তথ্যভাণ্ডার শুমারি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো দেশের সকল জনগোষ্ঠীর তথ্যসংবলিত একটি তথ্যভাণ্ডার তৈরি হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ উপলক্ষে আমি সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তথ্য ব্যবস্থাপনাকে একটি দক্ষ ও শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান হিসাবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) প্রতিষ্ঠান করেন। এ প্রতিষ্ঠান সেসময় থেকে দেশের আদমশুমারি, কৃষি শুমারি, শিল্প পরিসংখ্যান, জাতীয় আয় পরিসংখ্যান, অর্থনৈতিক শুমারি, শ্রমশক্তি জরিপ-এর মতো উল্লেখযোগ্য তথ্য বিষয়ক কার্যক্রম দক্ষতার সাথে সম্পন্ন করে আসছে। আমরা পরিসংখ্যান ব্যুরোর সকল কার্যক্রমকে আধুনিকায়ন করেছি। দেশের মানুষের জন্য তথ্যপ্রাপ্তি সহজ করেছি। আমরা বিভিন্ন কর্মসূচির সুফল মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থ্য করেছি।

আমি আশা করি, দেশের সকল খানা’র তথ্য নিয়ে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো-এর ‘জাতীয় খানা তথ্যভাÐার’ তৈরির উদ্যোগ দেশকে ডিজিটাইজেশনে আরো একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে। দারিদ্র্য দূরীকরণের মাধ্যমে দেশের সামগ্রিক আর্থসামাজিক উন্নয়নে এ তথ্যভাণ্ডার ব্যাপক ভ‚মিকা রাখতে সক্ষম হবে। একটি নির্ভুল ও সমন্বিত ‘জাতীয় খানা তথ্যভাণ্ডার’ দেশের তথ্য ব্যবস্থাপনাকে শক্তিশালী ও গতিশীল করবে।

আমি এ শুমারি কার্যক্রমের সর্বাঙ্গীণ সাফল্য কামনা করছি।