নিউইয়র্কে বিস্ম্ফোরণে অভিযুক্ত বাংলাদেশি আকায়েদ

নিউজ ডেস্ক: নিউইয়র্কের ম্যানহাটন বাস টার্মিনালে বিস্ফোরণে জড়িত সন্দেহে আটক বাংলাদেশি যুবক আকায়েদ উল্লাহকে ওই ঘটনায় অভিযুক্ত করা হয়েছে।

বুধবার ২৭ বছর বয়সী আকায়েদ উল্লাহর বিরুদ্ধে গ্র্যান্ড জুরি এ অভিযোগ গঠন করেছে বলে এনবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়।

ম্যানহাটনের ফেডারেল কোর্টে গ্র্যান্ড জুরির সামনে আকায়েদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র পেশ করেন প্রসিকিউটররা। গ্র্যান্ড জুরি তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর পক্ষে মত দেয়। সন্ত্রাসবাদের এসব অভিযোগ প্রমাণিত হলে বাকি জীবন কারাগারেই কাটাতে হবে বাংলাদেশি আকায়েদ উল্লাহকে।

অভিযোগ গঠনের পর জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল ডানা জে বয়েন্টে এবং নিউ ইয়র্ক সাদার্ন ডিস্ট্রিক্টের ইউএস এটর্নি জিয়োফ্রে এস বারমেন সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

জিয়োফ্রে এস বারমেন বলেন, ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড ও নিইউয়র্কে আইএসের অস্তিত জানান দিতেই ওই হামলা চালিয়েছিল আকায়েদ উল্লাহ।

বিদেশি সন্ত্রাসী সংগঠনকে সহায়তা; ব্যাপক বিধ্বংসী অস্ত্রের ব্যবহার; জনসমাগমস্থল ও পাবলিক পরিবহন ব্যবস্থায় সন্ত্রাসী হামলা ও বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সম্পদের ক্ষতি করার চেষ্টাসহ ছয় দফা অভিযোগ আনা হয়েছে এই যুবকের বিরুদ্ধে।

গত ১১ ডিসেম্বর স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ম্যানহাটনে টাইম স্কয়ার সাবওয়ে স্টেশন থেকে বাস স্টেশনে যাতায়াতের ভূগর্ভস্থ পথে বোমা হামলা হয়।

ওই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বাংলাদেশি আকায়েদ উল্লাহকে আটক করে নিউইয়র্ক পুলিশ। বিস্ম্ফোরণে তিনি গুরুতর আহত হন এবং তিন পথচারী সামান্য আহত হন।

যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, বিস্ম্ফোরিত বোমাটি আকায়েদের দেহের সঙ্গে বাঁধা ছিল। জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের মাধ্যমে অনুপ্রাণিত হয়ে সে এমন হামলা করে বলে দাবি সেখানকার পুলিশের।

নিউইয়র্ক পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, ২৭ বছর বয়সী আকায়েদ প্রথমে ট্যাক্সি চালাত। পরে একটি আবাসন কোম্পানির বৈদ্যুতিক মিস্ত্রির চাকরি নেয়। ব্রুকলিনের বাসিন্দা আকায়েদ বাসায় ইন্টারনেট ঘেঁটে বোমা বানানো শেখে এবং ইলেকট্রিশিয়ানের কাজের সূত্রে কর্মস্থলে বসেই বোমা তৈরি করে বলে ধারণা করছে যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশ।