খালেদা জিয়ার মামলা নিরাপত্তার স্বার্থেই স্থানান্তর করা হয়েছে: আইনমন্ত্রী

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, নিরাপত্তার স্বার্থেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলাগুলো বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতে স্থানান্তর করা হয়েছে। এতে কোনো রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই।

আজ মন্ত্রণালয়ে তাঁর দপ্তরে লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটের স্পিকার সাবিনা আক্তারের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া আদালতে হাজিরা দেওয়ার সময় তিন-চারশ লোক নিয়ে যান। এতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্ব পালনে বিঘ্ন সৃষ্টি হয়। এসব বিষয় বিবেচনা করে নিরাপত্তার স্বার্থে ওই আদালতে খালেদা জিয়ার মামলাগুলো স্থানান্তর করা হয়েছে। তিনি বলেন, যথাযথ প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়ার মামলার বিচার চলছে। এখানে কোনো তাড়াহুড়া করা হচ্ছে না।

মামলাগুলো ৫ থেকে ৬ বছর যাবৎ চলছে। খালেদা জিয়ার কোনো মামলাই দ্রুততার সঙ্গে শেষ করার উদ্দেশ সরকারের নেই। তিনি বলেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে অতীতের যে কোনো সরকারের চেয়ে বর্তমান সরকারের অবদান বেশি।

এর আগে বৈঠকে লন্ডন প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিভিন্ন সমস্যা এবং তাদের আইনগত সহায়তা প্রদানের বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। তিনি স্পিকারকে বলেন, যখনই প্রবাসী বাঙালিদের কোন সমস্যা সরকারের গোচরে আসে তখনই সরকার চেষ্টা করে কিভাবে তাদেরকে সাহায্য করা যায়।

বৈঠকে আইন মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শহিদুল হক, আইন ও বিচার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।