১৯৭২ এর লোগোতে ফিরে গেল রূপালী ব্যাংক

সিনিয়র রিপোর্টার:দীর্ঘদিনের পুঞ্জীভূত লোকসান কাটিয়ে লাভের মুখ দেখার পর ১৯৭২ সালের লোগোতে ফিরে গিয়ে নতুন রূপে রাষ্ট্রায়ত্ত রূপালী ব্যাংক।

রাজধানীর মতিঝিলে ব্যাংকটির প্রধান কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে ব্যাংকটির পরিবর্তিত লোগো উন্মোচন করা হয়। অনুষ্ঠানে রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোঃ আতাউর রহমান প্রধান বলেন, আগের বছরের ১০০ কোটি টাকার লোকসান কাটিয়ে গত বছর আমরা ৫৩৭ কোটি টাকা লাভ করেছি। আমরা ঘুরে দাঁড়িয়েছি। নতুন এই লোগোতে দ্বি-রঙা জাতীয় পতাকার সামঞ্জস্য রেখে একটি সবুজ বটগাছ ঘিরে রয়েছে লাল একটি বৃত্ত। এমডি বলেন, ১৯৭২ সালে ব্যাংক প্রতিষ্ঠার সময় এটাই ছিল মূল লোগো। ১৯৭৭ সালের পর কয়েকবার এই লোগো পরিবর্তিত হয়েছে। আমরা এখন মূল রূপে ফিরে গেলাম।

ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন এ সময় তার পাশে ছিলেন। আগের চেয়ে ব্যাংকের কম সংখ্যকসংখ্যা শাখা লোকসান করছে জানিয়ে আতাউর বলেন, এটা (লোকসানি শাখার সংখ্যা) এখন ৩৩টি, যা দুই বছর আগে ১৪৪টি ছিল। ব্যাংককে লাভের মুখ দেখানোর জন্য ব্যবস্থাপনা দলকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, সম্ভাবনার কোন সীমা নেই। লোগোর ব্যাখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, বটগাছ হলো অর্থনৈতিক কর্মকা-ের প্রতীক। আগের দিনে গ্রামের বাজার বসত বটগাছের নিচে।
ব্যাংকের শাখার সংখ্যা বিবেচনায় নিলে অন্যসব রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের চেয়ে রূপালী ব্যাংক বেশি সফল বলে মন্তব্য করেন তিনি। আমরা মাত্র ৫৬৩টি শাখা চালাই, যা অন্য যে কোন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের শাখার সংখ্যার প্রায় অর্ধেক। অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ব্যাংকের চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন বলেন, গত বছর আমাদের ব্যাংকের স্লোগান ছিল ঘুরে দাঁড়ানোর বছর। আমরা তাতে সফল হয়েছি।
এবার আমাদের লক্ষ্য শীর্ষে ওঠার। আশা করি এতেও সফল হবো। এ সময় ব্যাংকের ডিএমডি হাসনে আলম, মোরশেদ আলম খন্দকার, জিএম কাইসুল হক, ওয়াকার আহমেদ খান, আলতাফ হোসেন, মাঈন উদ্দিনসহ উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এমজেই,ঢাকা