অনশন ভাঙাতে যাচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সব নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির দাবিতে আমরণ অনশনরত শিক্ষক-কর্মচারীদের অনশন ভাঙাতে জাতীয় প্রেস ক্লাবে যাচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। মঙ্গলবার সকাল ১১টায় অনশন ভাঙাতে যাবেন বলে মন্ত্রী জানিয়েছেন।

রোববার থেকে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আমরণ অনশন শুরু করেন শিক্ষকরা। অনশনে সোমবার রাত পর্যন্ত ১৪ শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলে জানা গেছে। এর আগে একই দাবিতে গত ২৬ ডিসেম্বর থেকে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন তারা। শীতের রাতেও শিক্ষকরা ফুটপাতে অবস্থান করছেন।

বোররবার দুপুরে অনশনস্থলে গিয়ে দেখা যায়, অসুস্থ শিক্ষকদের জন্য দোয়া করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টরা যাতে শিক্ষকদের দাবির প্রতি সদয় হন সে জন্য দোয়া করেন তারা। এ সময় অনেক শিক্ষককে কাঁদতে দেখা যায়। কর্মসূচি আহ্বানকারী সংগঠন নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, টানা দু’দিনের অনশনে তাদের ১৪ শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েন। এর মধ্যে বর্তমানে ৬ জন ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন। কয়েকজনকে অনশনস্থলেই স্যালাইন দিয়ে রাখা হয়েছে।

শিক্ষক নেতারা বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। তারা আশা প্রকাশ করেন, অনশনে মৃত্যুর খবর শোনার আগেই প্রধানমন্ত্রী এমপিওভুক্তির ঘোষণা দেবেন।

সরকার স্বীকৃত সব মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার দাবিতেই শিক্ষকদের এ আন্দোলন। স্বীকৃতি পেলেও নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা সরকার থেকে কোনো আর্থিক সুবিধা পান না। সারাদেশে এমন নন-এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠান আছে ৫ হাজার ২৪২টি। এগুলোতে শিক্ষক-কর্মচারীর সংখ্যা ৭৫ থেকে ৮০ হাজার। অন্যদিকে বর্তমানে দেশে এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে প্রায় সাড়ে ২৬ হাজার। এগুলোতে শিক্ষক-কর্মচারী ৪ লাখের বেশি। সর্বশেষ ২০১০ সালে এক হাজার ৬২৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হয়েছিল।