১৪ ছক্কায় আফ্রিদির ১৭ বছরের রেকর্ড ভেঙেছিলেন অ্যান্ডারসন

নিউজ ডেস্ক: কোরি অ্যান্ডারসন, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অলরাউন্ডার। ২০১৪ সালের ১ জানুয়ারির আগে খুব কম সংখ্যক ক্রিকেট প্রেমীই তার নামটি জানতেন। কিন্তু সেই দিন নিজের জাত চিনিয়ে ছিলেন অ্যান্ডারসন। ৪টি চার ও ১৪টি ছক্কার মারে পাকিস্তানি তারকা শহীদ আফ্রিদির ১৭ বছরের রেকর্ড ভেঙেদিয়েছিলেন এই ক্রিকেট তারকা।

সেদিন কী তাণ্ডবটাই না চালিয়েছিলেন কোরি অ্যান্ডারসন। নিউজিল্যান্ডের কুইন্সটাউন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডেতে মাত্র ৩৬ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন অ্যান্ডারসন।

বৃষ্টির বিঘ্নিত কারণে ম্যাচের দৈর্ঘ্য নেমে এসেছিল ২১ ওভারে। ওইদিন অ্যান্ডারসন সুনীল নারিনকে এক ওভারে চার ছক্কা হাঁকিয়ে হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মাত্র ২০ বলে।পরের ১৬ বলেই ছুঁয়ে ফেলেন তিন অঙ্ক! ৩৫ বলে পৌঁছে গিয়েছিলেন ৯৫-এ।

তখন ওয়ানডের দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড ভাঙতে পরের বলে অ্যান্ডারসনের দরকার ছিল ছক্কা হাঁকানোর। নিকিতা মিলারের বলে স্লগ সুইপে লং লেগের ওপর দিয়ে ছক্কা হাঁকিয়ে মাইলফলক স্পর্শ করেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

অ্যান্ডারসন ভেঙেছিলেন শহীদ আফ্রিদির ১৭ বছরের অক্ষত রেকর্ড। ১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নাইরোবিতে আফ্রিদি ৩৭ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। ৩৬ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে সেই রেকর্ড অতীত করে দেন অ্যান্ডারসন।

অবশ্য পরের বছরের ঠিক জানুয়ারিতে জোহানেসবার্গে সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই ৩১ বলে সেঞ্চুরি করে অ্যান্ডারসনের রেকর্ডটা ভেঙে দেন দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স।

যেটি টিকে আছে এখনো। আফ্রিদির রেকর্ড ভাঙার দিনে ৪৭ বলে ৬ চার ও ১৪ ছক্কায় ১৩১ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেছিলেন অ্যান্ডারসন। তার খুনে ব্যাটিংয়ে সেদিন আড়াল হয়ে গিয়েছিল জেসি রাইডারের ৪৬ বলের সেঞ্চুরি। অ্যান্ডারসনের সেই ইনিংসের চতুর্থ বছর পূর্তি আজ।