উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকায় ভোট দিন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

চাটমোহর প্রতিনিধি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সততা, দুরদর্শিতা ও দক্ষতার কারণে দেশ যে উন্নয়নের মহাস্রোতে ও মহাসড়কে উন্নীত হয়েছে, তা অব্যাহত রাখতে আগামী নির্বাচনে অবশ্যই নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে জয়ী করুন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পাবনার চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়ালে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের নব নির্মিত ভবন উদ্বোধন উপলক্ষে হান্ডিয়াল হাইস্কুল মাঠে এক সুধি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

পাবনার পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির পিপিএম-এর সভাপতিত্বে ও চাটমোহর সার্কেলের সি.এএসপি তাপস কুমার পালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সুধি সমাবেশে বক্তব্য দেন, কৃষি মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ মকবুল হোসেন এমপি, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি এম.খুরশীদ হোসেন, র‌্যাব-১২ এর কমান্ডার অতিরিক্ত ডিআইজি সেলিম মোঃ জাহাঙ্গীর, পাবনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রুহুল আমিন, হান্ডিয়াল ইউপি চেয়ারম্যান কে এম জাকির হোসেন, হান্ডিয়াল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রবিউল করিম মাস্টার, সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ নুরুল ইসলাম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহ আলম প্রাং প্রমূখ।

সমাবেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী সারাদেশকেই বদলে দিয়েছেন। আপনাদের হিসাব করতে হবে, আপনারা কোথা থেকে কোথায় উঠে এসেছেন। ২০০৬ সালে দেশ কোথায় ছিলো, আজ কোথায়। আজকে খাদ্য ও বিদ্যুতের কোন ঘাটতি নেই। আমরা দূর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে পেরেছি।

দেশের লোকসংখ্যা এখন মানব সম্পদে পরিণত হয়েছে। চিকিৎসা ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, রাহাজানি আর জঙ্গিবাদ দমনে আমরা সফল হয়েছি। বিদেশে এক কোটি অভিবাসী আমাদের অর্থনীতির চাকা সচল রেখেছে।

পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসার দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে জীবন বাজি রেখে জঙ্গি দমন করেছে। তারা দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছে। জনগণ আমাদের সহযোগিতা করছেন। পদ্মা সেতুর কাজ এগিয়ে চলেছে, ২০২১ সালের মধ্যে আমরা মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবো। আমরা আরো এগিয়ে যাবো।

পুরুষের পাশাপাশি মহিলারাও দেশ গঠণে অবদান রাখছে। প্রধানমন্ত্রী শুধু বাংলাদেশের নেত্রীই নন, এখন তিনি সারাবিশ্বের নেত্রী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিকেলে ভাঙ্গুড়া থানা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ কাজ ও ফরিদপুর থানার নব নির্মিত ভবনের উদ্বোধন করেন।

প্রিন্স, ঢাকা