মহান বিজয় দিবস-২০১৭ স্মরণে কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এ ‘মহান বিজয় দিবস- ২০১৭’ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইউনিভার্সিটির অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মিডিয়া বিষয়ক উপদেষ্টা ও ডেইলি অবজারভার পত্রিকার সম্পাদক জনাব ইকবাল সোবহান চৌধুরী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর বোর্ড অব ট্রাস্টিজের প্রধান উপদেষ্ঠা ও প্রফেসর এম. এ. আরাফাত। এতে উদ্বোধনী বক্তব্য দেন কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর উইলিয়াম এইচ. ড্যারেঞ্জার। বিজনেস অনুষদের প্রধান ও এ্যাসোসিয়েট প্রফেসর জনাব এস. এম. আরিফুজ্জামানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভার শুরুতে ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা স্বাধীনতা নিয়ে ২টি কবিতা আবৃত্তি করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জনাব ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের মুক্তির জন্য স্বাধীনতা এনেছেন আর এখন তাঁর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, বিজয় দিবস, মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাগণ বাঙ্গালী জাতির গর্ব। এছাড়া ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ’র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ-কে বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে ইউনেস্কোর স্বীকৃতি প্রদান ও বিশ্ব আন্তর্জাতিক রেজিস্টারে অন্তর্ভক্তির বিষয়টিকে এবারের বিজয় দিবস উদ্যাপনকে আরো অর্থবহ করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ স্বীকৃতি সমগ্র জাতিকে আবারো গর্বিত করেছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠযোদ্ধা ও একুশে পদকপ্রাপ্ত গণসঙ্গীত শিল্পী এবং ঋষিজ শিল্পী গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা জনাব ফকির আলমগীর এবং বুয়েটের সিএসই বিভাগের প্রফেসর ও সাবেক বিভাগীয় প্রধান এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটির কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং ডিভিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মাহ্ফুজুল ইসলাম। জনাব ফকির আলমগীর তাঁর বক্তব্যে কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর শিক্ষার্থীদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করেন এবং মুক্তিযুদ্ধকালী সময়ে তাঁর গান কিভাবে মুক্তিযোদ্ধাগণকে অনুপ্রাণিত করেছেন তা উল্লেখ করেন। এসময় মুক্তিযুদ্ধকালীন তাঁর গাওয়া কয়েকটি গানও পরিবেশন করেন তিনি।

এসময় কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর রেজিস্ট্রার ব্রি. জে. মো. আসাদুজ্জামান সুবহানী (অব.), প্রোক্টর ও হেড অব ক্যারিয়ার সার্ভিস উইং বিজনেস স্কুলের এ্যাসোসিয়েট প্রফেসর জনাব হানিফ মাহতাব, হেড অব স্টুডেন্ট সার্ভিস উইং ও স্টুডেন্টস ডাইরেক্টরেট এবং বিজনেস স্কুলের এ্যাসোসিয়েট প্রফেসর জনাব মো. লাতিফুল খাবির, স্কুল অব ল’এর কো-অর্ডিনেটর ও এ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ড. আব্দুল্লাহ-আল-মনজুর হোসাইন, প্রোগ্রাম অব ফিল্ম এ্যান্ড টিভি’র হেড ও এ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ড. নূরুল ইসলাম বাবুল, স্কুল অব বিজনেস-এর এ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর ড. আকিম এম রহমানসহ ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী ও অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রিন্স, ঢাকা