মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের সংগঠনগুলোর ঐক্যের আহ্বান

বিজয়ের ৪৬ বছরের এই দিনে এসেও মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের রাজনৈতিক দল ও মতের মানুষগুলো ঐক্যবদ্ধ হতে না পারাটা অত্যন্ত দুঃখজনক। স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস এবং জাতীয় নির্বাচন ও দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখার জন্য মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের সকল রাজনৈতিক দল-মতের ঐক্যে, সময়ের প্রয়োজন হয়ে পড়েছে।

শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১২টায় জাতীয় স্মৃতিসৌধে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সকল শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর এ আহ্বান করেন বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম (বোয়াফ)।

বোয়াফ সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময় বলেন, মুক্তিযুদ্ধের রাজনৈতিক দল ও ব্যক্তিদের মধ্যে সমন্বয় নেই বলেই আজ স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকার ও তাদের পৃষ্ঠপোষক গোষ্ঠী দেশ ও জনগণ বিরোধী ষড়যন্ত্র করতে সাহস পাচ্ছে। সমাজ গঠন ও রাষ্ট্র নীতিতে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তির ঐক্যের প্রয়োজন হয়ে পড়েছে।

তিঁনি আরও বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও রাজাকার-যুদ্ধাপরাধী ও তাদের পৃষ্ঠপোষকদের ছুড়ে ফেলে দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের রাজনৈতিক দল-মতের ঐক্যের মাধ্যমে দেশ ও জনগণের আশা আকাঙ্খার প্রতিফল ঘটানো রাজনৈতিক সংগঠকদের দায়িত্ব বলে আমি মনে করি।

জাতীয় স্মৃতিসৌধে অন্যন্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সহ-সভাপতি বদরুল আলম, হাবিবুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ইমরান খান শ্রাবন, মহিবুল হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম জুয়েল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রাকিব, কেন্দ্রীয় সদস্য নাঈমুর রহমান ইপনসহ আরও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

প্রিন্স, ঢাকা