প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সংবাদ সম্মেলন

পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের পরের ধাপে বেতন স্কেল নির্ধারণের এক দফা দাবিতে পঞ্চগড়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সহকারী শিক্ষকরা। শনিবার সকালে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ওই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমাজ পঞ্চগড়ের সভাপতি মাহবুব হাসান রাজু। সংবাদ সম্মেলনে তারা জানান, ১৯৭৩ সালে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারি শিক্ষকদের বেতন স্কেল একই ছিল। তারপর থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের পরের স্কেলে বেতন পেতেন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারি শিক্ষকরা।

সর্বশেষ ২০১৫ সালের অষ্টম জাতীয় পে-স্কেলে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকরা ১১ তম গ্রেড এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারি শিক্ষকরা ১৪ তম গ্রেডে বেতন পাচ্ছেন। এতে বৈষম্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে অনেক আন্দোলন করা হলেও বেতন বৈষম্য নিরসন করা হয়নি।

তারা আগামী ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে তাদের প্রাণের এক দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান। তা না হলে আগামী ২৩ ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আমরণ অনশন কর্মসূচির মাধ্যমে দাবি আদায় করা হবে বলে তারা ঘোষণা দেন। সংবাদ সম্মেলনে জেলার বিভিন্ন গণমাধ্যম কর্মী ও সহকারী শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রিন্স, ঢাকা