রাবিতে নজরুল বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ‘নানারূপে নজরুল’ শিরোনামে এক বিশেষ বক্তৃতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিকেল পাঁচটায় শহীদুল্লাহ কলাভবনের ১৫০ নম্বর কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। বাংলা বিভাগ এ সেমিনারের আয়োজন করে।

সেমিনারে প্রধান বক্তা অধ্যাপক গোলাম মুরশিদ বলেন, নজরুলকে কেউ বিদ্রোহী নজরুল, কেউ বলেছেন প্রেমিক নজরুল, কেউ বলেছেন কবি নজরুল। কিন্তু এই বিচিত্র পরিচয়ের মধ্যে তার পরিচয় বিদ্রোহী হিসেবে। ধূমকেতু পত্রিকার মাধ্যে তার বিদ্রোহ দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু এর পর তার কোনো বিদ্রোহ পাওয়া যায় না। কলকাতায় ফেরার সময় তিনি পাঁচটি গল্প লিখেছেন।

বিদ্রোহী তিনি কি করে হলেন তা তিনি বলেন। প্রথম তার কবিতায় স্থান পায় দেবদেবীর কথা আগমনী কবিতায় দেখা যায় তার ইঙ্গিত। মানবতাবাদী নজরুল তিনি বলেছেন চাই না সুর, চাই না অসুর, দেবদেবী চাই না মানুষ চাই। তিনি ছিলেন সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় রাজনীতি আচারের উর্ধ্বে।

তিনি আরো বলেন, বিদ্রোহের রূপ কাজী নজরুল ইসলাম ধূমকেতু পত্রিকার মাধ্যমে , বাস্তব জীবনে বিদ্রোহ তিনি প্রথম বলেছিলেন ভারতের এক ইঞ্চি মাটি বিদেশীদের হতে থাকবে না। কবিদের মধ্যে সবার আগে কারাবাস করেন, রাজবন্দীদের মুক্তির জন্য অনশন করেন। লেবার স্বরাজ গঠন করেন। এছাড়াও নজরুল সাম্যবাদী, স্বরাজ্যবাদী, সংগীত সংগ্রামী ধর্মভীরু , নাস্তিক নানারূপে তাকে দেখা যায় তার লেখনির মধ্যে। সবকিছুর মূলে তাকে ভক্তিবাদী কবি বলা হয়।

বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. খন্দকার ফরহাদ হোসেনের সভাপতিতে সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. সুজিত কুমার , অধ্যাপক ড.শহীদ ইকবাল, অধ্যাপক ড. মনিরা কায়েস, ড. সুমাইয়া খানম, সৈয়দ তৌফিক জুহরী , মো. দেলোয়ার হোসাইন, পুরনজিত মহালদার, এস এম সাইদুল আম্বিয়া, মো. মানিকুল ইসলাম, ড. মোসা. কামসুন নাহার, তানিয়া তহমিনা সরকার, গৌতম দত্ত, মো. সুজা উদ-দৌলা প্রমুখ শিক্ষক এবং শতাধিক শিক্ষার্থী।

প্রিন্স, ঢাকা