আত্বপ্রকাশ করছে আরো একটি মুক্তিযোদ্ধা সংগঠন

নিউজ ডেস্ক: আত্বপ্রকাশ করতে যাচ্ছে নতুন আরো একটি মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সংগঠন । বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, প্রস্তুতি পর্ব হিসাবে ইতিমধ্যে তিনটি বৈঠক সম্পন্ন হয়েছে । সংগঠনের নাম, কর্মপদ্বতি ও ভবিষ্যত নেতৃত্ব নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন র্পযায়ে আলোচনা হয়েছে ।

এ বিষয়ে উদ্যোক্তাদের একজন বলেন, ১৯৭১ সালে ভারতের বিভিন্ন স্হানে মুক্তিযুদ্ধের ট্রেনিং প্রাপ্ত হয়ে মাতৃভূমি বাংলাদেশকে হানাদার পাকিস্হানী বাহিনীর হাত থেকে মুক্ত করাতে বঙ্গবন্ধুর ডাকে যারা জীবন বাজী রেখে সন্মুখ সমরে অবর্তীণ হয়েছিলেন। অথচ স্বাধীন বাংলাদেশে নানা রাজনৈতিক কারনে সমাজ জীবন ও র্কমক্ষেত্রে এই সব মুক্তিযোদ্ধা অনেকেই নিগৃহিত ও অবহেলিত আছে । মুক্তিযুদ্ধা হয়েও রাষ্টীয় স্বীকৃতি থেকে বন্চিত । সকল বাধাকে উপেক্ষা করে বাধ্য হয়ে এই সকল বন্চিত মুক্তিযোদ্ধারা আশ্রয় নিয়েছিলো আদালতে । নিম্ন আদালত ও উচ্চ আদালত মুক্তিযোদ্ধাদের অধিকারের স্বীকৃতি দিয়েছে । কিন্তু আদালতের রায়কে উপেক্ষা করা হচ্ছে ।

তিনি আরো বলেন, আমরা সকল শহীদের স্বপ্ন, সংবিধানের চার মূলনীতি, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধ বাস্তবায়নে তথা জবাবদিহিতা মূলক উন্নত বাংলাদেশ বির্নিমানে আন্দোলন সংগ্রাম করে যাব । মুক্তিযোদ্ধের অধিকার প্রতিষ্ঠায় এই নতুন সংগঠন কাজ করে যাবে ।

সূত্র আরো জানায়, ১৫ই ডিসেম্বর ২০১৭ শুক্রবার সকাল ১০টায় তোপখানা রোডের শিশু কল্যান মিলনায়তনে বিজয় দিবস উপলক্ষ‌্যে আলোচনা ও করনীয় নির্ধরনের জন্য বিশেষ সভার আহবান করা হয়েছে । অনুষ্ঠানে জননেতা পংকজ ভট্টাচার্য, মনজুরুল আহাসান খান, এড সুব্রত চৌধুরী, ফৌজিয়া মুসলেমসহ বিভিন্ন মুক্তিযোদ্ধারা বক্তা হিসাবে উপস্হিত থাকবেন বলে জানা গেছে ।

উদ্যোক্তারা আরো জানান, প্রথমিক ভাবে সংগঠনের নাম বিশেষ গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা বাহিনী নির্ধারণ করেছে।